চিলিতে ভূমিকম্পে নিহত ২, সুনামির সতর্কতা জারি

0
75

earthচিলির উত্তরাঞ্চলে শক্তিশালী ভূমিকম্পে দুইজনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া আশংকাজনক অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে আরও ৩ জন। মঙ্গলবার মধ্যরাতে রিখটারস্কেলে ৮.২ মাত্রার ভুমিকম্প আঘাত হানলে এ ঘটনা ঘটে। এ ভূমিকম্পের পর চিলির প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূলজুড়ে বুধবার সুনামির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। খবর হিন্দুস্থান টাইমস ও বিবিসির।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, এ ভূমিকম্পের কেন্দ্র ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ১০ কিলোমিটার গভীরে। ভূমিকম্পের ফলে চিলির সমূদ্র উপকূলের কোথাও কোথাও ২ মিটার পর্যন্ত উঁচু ঢেউ সৃষ্টি হয়েছে। চিলি কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে উপকূলীয় এলাকা থেকে লোকজনকে দ্রুত সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

প্রশান্ত মহাসাগরীয় সুনামি সতর্কীকরণ কেন্দ্র (টিডাব্লিউসি) থেকে এক সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, পেরু, ইকুয়েডর, কলম্বিয়া, পানামা, কোস্টারিকা ও নিকারাগুয়ার উপকূলে সুনামি আঘাত হানতে পারে। ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট রাফায়েল কোরেয়া এক টুইটার বার্তায় বলেছে, “আমাদের উপকূলীয় এলাকার প্রত্যেককে সতর্ক ও প্রস্তুত থাকতে হবে।” চিলির নৌবাহিনী বলেছে, ভূমিকম্পের ৪৫ মিনিট পর দেশটির উপকূলে কিছু উঁচু ঢেউ আঘাত হেনেছে।

টিডাব্লিউসি বলছে, এরকম শক্তিশালী ভূমিকম্প ধ্বংসাত্মক সুনামি তৈরি করতে পারে এবং তা ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থলে কাছাকাছি কয়েক মিনিটে এবং দূরবর্তী উপকূলীয় এলাকায় কয়েক ঘন্টা পর আঘাত হানতে পারে বলে আশংকা করছে তারা।

এদিকে  চিলির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটির আইকুইক শহরের বাইরে মহাসড়ক ঘেঁষে অবস্থিত পাহাড় ধসে পড়ার কারণে সড়কটি পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে। এ ছাড়া, ভূমিধসের কারণে পুতরে ও জেনারেল লাগোস শহরের মধ্যবর্তী মহাসড়কেরও কয়েকটি স্থান আংশিকভাবে বন্ধ হয়ে গেছে। এছাড়া  লোকজন উপকূলীয় এলাকা ছেড়ে তাড়াহুড়ো করে চলে যাওয়ার কারণে মহাসড়কে তীব্র যানজট তৈরি হয়েছে। কোথাও কোথাও ভূমিধসের কারণে মহাসড়ক বন্ধ হয়ে গেছে বলে জানানো হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলাভি জানিয়েছেন, “সুনামির ক্ষয়ক্ষতি থেকে বাঁচার জন্য যত পূর্বপূস্তুতি দরকার হয়। আমরা তা নেওয়ার ব্যবস্থা করছি।”

এস রহমান/