বাঙালি সংস্কৃতির সবচেয়ে বড় পার্বন পহেলা বৈশাখ

0
79
Boishakhi

OLYMPUS DIGITAL CAMERAবাঙালি সংস্কৃতির সবচেয়ে বড় পার্বন পহেলা বৈশাখ। আনন্দ হৈ-হুল্লুর করে সবাই কাটাবে এই দিনটি, বাঙালির কাছে বৈশাখ যেন ঈদ-পূজা পার্বনের মতোই মহোৎসবের আরেকটি দিন।আর এই দিনটিকে ঘিরে সবাইর থাকে ভিন্ন আয়োজন। সবার সে ভিন্ন আয়োজনে ফুটপাত সেজেছে বৈশাখী সাজে।

রাজধানীর ফুটপাতগুলো বৈশাখ উপলক্ষে নানা ধরনের পোশাক, জুতা, প্রসাধনী ডালি সাজিয়ে বসে আছে। ধনী-গরির, ছোট বড় সবাই এ দিনে আনন্দের ভুবনে হারিয়ে যায়। এই দিনে যারা রাজধানীর বড় বড় শপিং মল থেকে কিনতে পারবে না তার পছন্দের বৈশাখী পোশাক। তাদের জন্য রাজধানীর ফুটপাতে রয়েছে বাহারি রঙের ও ঢঙের  বৈশাখী পোশাক।

রাজধানীর মতিঝিল, বাইতুল মোকাররম, গুলিস্তান, রাজধানী সুপার মার্কেট, বঙ্গবাজার, নিউমার্কেটসহ বিভিন্ন ফুটপাত থেকে এখন আপনি কিনতে পারেন সোনামনির বৈশাখের জামা, ফতুয়া, পায়জামা, প্যান্টসহ বাহারি রঙের বৈশাখী পোশাক।

ছোট্ট সোনামনির জামা, পাঞ্জাবি, পাজামা, ফতুয়া, প্যান্ট কিনতে পারবেন ১০০ টাকা থেকে ২৫০ টাকার মধ্যে।

বাইতুল মোকাররমে কথা হয় শাকিল নামের এক ফুটপাত পোশাক বিক্রেতার সাথে তিনি বলেন, বাজারে বৈশাখের পোশাকের বেচা-বিক্রি এখন পর্যন্ত শুরু হয়নি। বেশাখের কয়েক দিন আগ থেকে শুরু হয় এর বেচা বিক্রি।

তিনি বলেন, আমার এখানে নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও নিম্ন আয়ের লোকেরাই ক্রেতা। বড় লোকরা তো বসুন্ধরা, রাইফে স্কয়ার, ধানমন্ডি, গুলশান বনানী উত্তরার বড় বড় মার্কেট থেকে পোশাক কিনবে। গরীবরা আমাদের এখান থেকেই সাধ্যমতো পোশাক কিনে আনন্দের মাঠে অংশ গ্রহণ করবে।

জাকির হোসেন নামের এক ক্রেতা বলেন, ভাই আমরা গরিব যা আয় করি তা দিয়ে কোন মতে পেট চালাই। তার পর ছেলে-মেয়েরা তো আর সেটা বোঝে না, তাদের বৈশাখে একটা নতুন পোশাক চাই। তাই সাধ আর সাধ্যের মধ্যে সমন্বয় করে এখান থেকে পোশাক কিনে নিচ্ছি। আমিও খুশি আমার বাচ্চারও খুশি।

অর্থসূচক.কম/এসএস/