দুষ্ট ঘোড়ার দাপট কমেছে

0
102

Black-Horseঅবশেষে থেমেছে পুঁজিবাজারের দুষ্ট ঘোড়ার ছুটে চলা। টানা কিছু দিনের উর্ধগতির পর কমেছে দূর্বল মৌলের বিভিন্ন কোম্পানির শেয়ারের দাম। সোমবার লাগামহীন এসব শেয়ারের প্রায় সবগুলো দর হারিয়েছে। শুধু তা-ই নয়, লেনদেনের এক পর্যায়ে কোনো কোনোটির ক্রেতা পর্যন্ত উধাও হয়ে গেছে।

সোমবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দর হারানোতে শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে ৯ টিই তুলনামূলক দূর্বল কোম্পানির শেয়ার। এদের কোনোটি জেড গ্রুপভূক্ত, কোনোটির মূল্য আয় অনুপাত বা পিই রেশিও ১০০ ছাড়িয়ে গেছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও গত কয়েকদিন ধরে লাগামহীনভাবে বাড়ছিল এদের দাম।

সোমবার ওই কোম্পানিগুলোর দাম সর্বোচ্চ সাড়ে ৮ শতাংশ থেকে সর্বনিম্ন সাড়ে ৬ শতাংশ পর্যন্ত কমেছে। এদিন দর হারানোতে সবার উপরে ছিল রেনউইক যজ্ঞেশ্বর। কোম্পানিটির শেয়ারের দাম কমেছে ৮ দশমিক ৬২ শতাংশ। অথচ আগের দিনও শেয়ারটির দাম বেড়ছিল প্রায় ৫ শতাংশ। আর এক মাসে এই শেয়ারের দর বেড়েছে প্রায় ১৩৫ শতাংশ। টানা দর বৃদ্ধিকালে একাধিক দিন ডিএসইতে শেয়ারটির বিক্রেতা উধাও হয়ে পড়তে দেখা যায়।

সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে এসব শেয়ারের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি সম্পর্কে রিপোর্ট প্রকাশ, কোম্পানির কাছে ডিএসইর পক্ষ থেকে মূল্য সংবেদনশীল তথ্য জানতে চাওয়া কোনো কিছুই  উর্ধমুখী রথ থামাতে পারেনি।

সোমবার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ দর হারিয়েছে ন্যাশনাল টিউবস। এটির দর কমেছে ৮ দশমিক ৫২ শতাংশ। চতুর্থ স্থানে থাকা আনোয়ার গ্যালভানাইজিংয়ের শেয়ার দর ৭ দশমিক ৬০ শতাংশ, মেঘনা কনডেন্স মিল্কের ৭ দশমিক ২৭ শতাংশ, আলহাজ্ব টেক্সটাইলে ৭ দশমিক ২১ শতাংশ, মুন্নু সিরামিকে ৭ দশমিক ১২ শতাংশ, জিলবাংলা সুগার মিলের ৭ শতাংশ, দেশবন্ধু গার্মেন্টসের ৬ দশমিক ৬২ শতাংশ এবং বিচ হ্যাচারির শেয়ারের দাম ৬ দশমিক ৪৪ শতাংশ কমেছে।

বিশ্লেষকদের মতে, সম্প্রতি দূর্বল মৌলের শেয়ারের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির ধারায় নেতৃত্ব দিয়েছে রেন উইক যজ্ঞেশ্বর। টানা দর বৃদ্ধির কারণে এমনিতেই শেয়ারটির মূল্য সংশোধন অবধারিত ছিল। তারওপর এই শেয়ারের মূল্য বৃদ্ধি খতিয়ে দেখতে রোববার একটি তদন্ত কমটি গঠন করে ডিএসই। এতে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের টনক নড়ে। সব মিলিয়ে শেয়ারটির মূল্য সংশোধন শুরু হয়। আর এ প্রভাবে সমজাতীয় অন্যান্য শেয়ারেরও দাম কমে।