বিএসইসিকে আরও শক্তিশালী করার আহ্বান

0
65

rokeya afjalপুঁজিবাজারে গতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (বিএসইসি) আরও শক্তিশালী করার আহ্বান জানিয়েছেন মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এমসিসিআই) সভাপতি রোকেয়া আফজাল রহমান। একইসঙ্গে বিএসইসি পরিচালনায় পেশাদারিত্ব নিশ্চিত করারও আহ্বান জানান তিনি।

এমসিসিআই সভাপতি বলেন, বিএসইসি’র দুর্বলতা জন্য ২০১০ সালে পুঁজিবাজারে ধস নেমেছিল। এ ধসের ক্ষতি এখনও পুষিয়ে উঠতে পারেননি বিনিয়োগকারীরা।

রোববার দুপুরে মতিঝিলের চেম্বার ভবনে এমসিসিআই আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ আহ্বান জানান। এ সভায় সরকারের কয়েকজন সিনিয়র মন্ত্রীর সঙ্গে ব্যবসায়ী নেতারা বিভিন্ন মন্ত্রীদের সঙ্গে ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের এক মতবিনিময় সভার স্বাগত বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন।

সভায় এমসিসিআই সভাপতি পুঁজিবাজারের পাশাপাশি ব্যাংকিং খাতে আমানতকারীদের আস্থা ফেরাতে বাংলাদেশ ব্যাংককে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, এ খাতের সাম্প্রতিক প্রতারণার ঘটনা আমানতকারীদের আস্থাকে নড়বড়ে করে দিয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের দায়িত্বহীনতা ও পেশাদারিত্বের অভাবে এসব প্রতারনা ও জালিয়াতির ঘটনা ঘটেছে বলে ইঙ্গিত করেন তিনি।

সভায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, এফবিসিসিআইএর সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদসহ ব্যবসায়ী নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

রোকেয়া আফজাল বলেন, পুঁজিবাজারের স্বচ্ছতা ও কোম্পানিগুলোর জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। বিগত দিনে পড়ে যাওয়া পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীরা এখনও দাঁড়াতে পারেনি।

তিনি বলেন, দেশে হরতাল-অবরোধের পরেও চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক অর্থাৎ জুন থেকে ফেব্রুয়ারি সময়ে রপ্তানিতে প্রবৃদ্ধি ১৩ দশমিক ৯৬ শতাংশ হয়েছে। তিনি জাতীয় নীতিমালা ও কর্মকৌশলকে এগিয়ে নিতে শক্ত প্রচেষ্টার কথা বলেন।যাতে বিরাজমান বাণিজ্যিক বাধা দূর, বিনিয়োগ, রাজস্ব আদায়, শিল্পায়ন, কর্মক্ষম জনশক্তি, টেকসই উন্নতি, সামাজিক সেবা নিশ্চিত হয়।

তাছাড়া, সমস্যাযুক্ত জায়গা যেমন ট্যারিফ শাসন, আর্থিক সহায়তা, বাজেটি বিভাজনে সমন্বয়ের জন্য পল্লী শিল্প উন্নয়ন, রপ্তানি বৈচিত্র ও কর্মক্ষম জনগোষ্ঠী সৃষ্টিতে উদ্যোগের কথা বলা হয়।