রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকের জালিয়াতিতে সবাই দায়ী: অর্থমন্ত্রী

0
67

Muhitরাষ্ট্রয়ত্ব ব্যাংকের জালিয়াতিতে সবাই দায়ী বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। আর এতে আড়াই থেকে তিন হাজার কোটি টাকা পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।

রোববার দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিতে (ডিএমসিসিআই) মন্ত্রীদের সঙ্গে ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। এ সময় বিদ্যুৎ সমস্যার সংকট কাটাতে এক-দুই বছর সময় লাগতে পারে বলেও জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, এফবিসিসিআই এর সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রয়ত ব্যাংকগুলোতে যে জালিয়াতি হয়েছে তাতে সবাই দায়ী। ব্যাংকে অডিটের কথা বলা হলে কর্তৃপক্ষ অডিট করছে বলে রিপোর্ট দিয়েছে। যা ছিল সম্পূর্ণ মিথ্যা রিপোর্ট। তবে, এটা হওয়ায় আমরা সাবধান হতে পেরেছি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংক যে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার তাতে উপকৃত হয়েছে বলে তিনি দাবি জানান।

ব্যাংক সুদের হার কমানোর প্রশ্নে তিনি বলেন, সুদের হার একটি জটিল সমস্যা। কিছু কিছু ক্ষেত্র ছাড়া সরকার ২০০৪ সাল থেকে সুদের ওপর নিয়ন্ত্রণ ছেড়ে দিয়েছে। এখন এটি কেবলমাত্র বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে। তবে, এ ব্যাপারে সচেতন হওয়ার দরকার আছে বলে মনে করেন তিনি।

শিল্পায়নের জন্য ভূমি সমস্যার বিষয়ে তিনি বলেন, ভূমি দস্যুরা এখন একটি বাজে চরিত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে। যারা ক্ষমতাশালী তারাই এখন ভূমি দস্যু। তবে, পড়ে থাকা জমি কিভাবে ব্যবহার করা যায় তা নিয়ে কাজ হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

দেশে গ্যাস সংকট বিষয়ে তিনি বলেন, গ্যাস সংকট সামাধান করতে আরও এক-দুই বছর সময় লাগবে। তবে, এর জন্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বেশি দিন আর দূর্ভোগ পোহাতে হবে না। এই সংকটের কারণে সরকার কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদনের দিকে এগুচ্ছে বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী শিল্পায়নের ব্যাপারে বলেন,  ভবিষ্যতে জমির কোনো সংকট হবে না। বরাদ্দ দেওয়া প্লটের বিষয়ে বিসিককে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। অব্যবহৃত প্লট পড়ে থাকলে তার বরাদ্দ বাতিল করে আবার নতুন করে বরাদ্দ দেওয়া হবে। যাতে সেখানে শিল্পায়ন হয়।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের পোশাক শিল্পে এই মুহূর্তে কোনো শ্রমিক অসন্তোষ নেই। শ্রমিক নামধারী কিছু স্বার্থান্বেষী মহল পোশাক শিল্পের বিরুদ্ধে বিদেশিদের কাছে আত্মগোপনে অভিযোগ করে বলে মনে করেন তিনি।