বন্ধ হচ্ছে উইন্ডোজ এক্সপি

0
61
windows xp

windows xpনিরপত্তা ঝুঁকির কারণে জনপ্রিয় অপারেটিং সিস্টেম এক্সপি ভার্সনের জন্য সেবা বন্ধ করে দিতে যাচ্ছে মাইক্রোসফট। আগামি ৮ এপ্রিল থেকে এটি কার্যকর হবে।

বাংলাদেশে পিসি ব্যবহারকারীদের অধিকাংশই এখনও মাইক্রোসফট এক্সপি ব্যবহার করে থাকেন। মেয়াদ উত্তীর্ণ অপারেটিং সিস্টেম এক্সপি ব্যবহার করে কেউ যেন ক্ষতির মুখোমুখি না হন সেজন্য ২৩ মার্চ সাভারে অনুষ্ঠিত হয় ‘মাইক্রোসফট বুট ক্যাম্প’।

ব্যবহারকারীদের আগাম সতর্ক করতে এবং তাদের জন্য অধিক নিরাপদ অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ-৮ ও ৮.১ এবং মাইক্রোসফট অফিস এর নতুন সংস্করণ ‘অফিস ৩৬৫’ নিয়ে  কর্মশালার আয়োজন করা হয়। এর আয়োজক ছিল মাইক্রোসফটের বাংলাদেশি পরিবেশক কম্পিউটার সোর্স।

দুই পর্বের এ কর্মশালায় অংশ নেন দেশব্যাপী মাইক্রোসফট সফটওয়্যার বিক্রেতা এবং ইন্টারনেট সেবাদতা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা।

Microsoft Boot Campঅনুষ্ঠানে মাইক্রোসফট এক্সপি ভার্সনের নানা ঝুঁকি এবং তা থেকে উত্তরণের উপায় বিষয়ে আলোকপাত করেন কম্পিউটার সোর্স এর মাইক্রোসফট পণ্য ব্যবস্থাপক আবু তারেক আল কাইয়্যুম, রাজীব তানিম ও মনিরুজ্জামান। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন- মাইক্রোসফট বাংলাদেশ এর পার্টনার সেলস এক্সিকিউটিভ রুমেসা হুসাইন, টেকনলজি অ্যাডভাইজার আবু সালেহ মুহাম্মদ রাশেদুজ্জামান ও পার্টনার অ্যাকাউন্ট ম্যানেজার আরিফ হোসাইন।

দিনব্যাপী এ কর্মশালায় জানানো হয়, মাইক্রোসফট এক্সপি সেবা বন্ধ করে দেওয়ায় প্রধান ঝুঁকির উৎস হবে এটিএম ও পিওএস মেশিনগুলো। এছাড়াও নতুন নতুন অনলাইন হুমকী মোকাবেলার ক্ষেত্রে সক্ষমতায় পিছিয়ে থাকায় অনাহূত বিড়ম্বনার শিকার হতে পারেন সাধারণ ব্যবহারকারীরা।

কর্মশালায় পিসি ব্যবহারকারীদের নিরাপদ থাকার জন্য মাইক্রোসফট উইন্ডোজ-৮ এবং ৮.১, সিস্টেম বিল্ডারদেরকে মাইক্রোসফট ওইএম এবং কর্পোরেট পর্যায়ে পেপার লাইসেন্স সফটওয়্যায় ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়। একইসাথে নকল অপারেটিং সিস্টেমের বদলে লাইসেন্সকৃত সফটওয়্যার ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয় লাইসেন্সকৃত সফটওয়্যারের বছরব্যাপী সেবা এবং এর নিরাপত্তা ও বিশেষ সুবিধা সম্পকে।

কেএফ