রাজশাহীতে চিকিৎসককে কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে বিক্ষোভ

0
76
rajshahi

rajshahiরাজশাহীতে চিকিৎসককে কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও বিভিন্ন রোগ নির্ণয় কেন্দ্রের চিকিৎসকরা। আর এতে নানা ভোগান্তিতে পড়েছেন চিকিৎসা নিতে আসা সাধারণ রোগীরা।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপতালসহ সরকারি হাসপাতালগুলো খোলা থাকলেও বৃহস্পতিবার থেকে সেখানে কোনো চিকিৎসক নেই।

এরা আগে ভুল চিকিৎসায় রাজশাহী নগরীর ডলফিন ক্লিনিকে এক রোগীর মৃত্যুর মামলায় বিএমএ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও স্বাচিপের সাংগঠনিক-সম্পাদক শামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুলকে বৃহস্পতিবার দুপুরে কারাগারে পাঠায় আদালত।

বিএমএ ও স্বাচিপ ঘোষণা করে যে, শামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুলের মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত সকল প্রকার চিকিৎসা সেবা বন্ধ থাকবে। তবে, দুইজন চিকিৎসকের মাধ্যমে শুধু রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হবে বলে ঘোষণায় জানানো হয়।

ট্রান্সভ্যাজাইনাল আল্ট্রা সাউন্ড (টিভিএস) পরীক্ষা করানোর জন্য চাঁপাইনবাগঞ্জের শিবগঞ্জ থেকে স্ত্রীকে নিয়ে সকালে রাজশাহী আসেন আবু বকর সিদ্দিক। কিন্তু কোনো ডায়াগনেস্টিক সেন্টার খোলা না পেয়ে ফিরে যেতে হয় তাকে।

অ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বাবাকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন রাকিব।

রোগীদের জিম্মি করে দাবি আদায়ের চেষ্টা করছেন- এমন অভিযোগের জবাবে ‘বেসরকারি ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক ও নার্স এসোসিয়েশন’, রাজশাহী শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. মকলেসুর রহমান বলেন, “রোগীদের জিম্মি করতে আমরা চাই না। তবে বাধ্য হয়ে ধর্মঘটে যেতে হয়েছে।”

তিনি বলেন, “চিকিৎসাকালীন একজন রোগী মারা যেতেই পারে। কিন্তু হত্যা মামলা দিয়ে একজন নামি দামি চিকিৎসককে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর মামলা দিলে আমাদের আপত্তি থাকত না।”

স্বজনদের অভিযোগ, চাঁপাইনবাবগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত আশরাফুল ইসলামকে (৩৫) বৃহস্পতিবার রাজশাহী মেডিকেলে আনা হলেও শুক্রবার দুপুরে তার মৃত্যু হয় বিনা চিকিৎসায়।

গত ২৯ জানুয়ারি বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও স্বাচিপের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের অর্থপেডিক বিভাগের চিকিৎসক ডা. শামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুলের ডলফিন ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ব্যবসায়ী আনোয়ারুল হক টিপু।