দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে আরএডিপিতে বরাদ্দ চেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়

0
62

bd-govtদেশের বিপুল জনগোষ্ঠিকে দক্ষ শ্রমশক্তিতে পরিণত করার পরিকল্পনা করেছে সরকার। তার জন্য কারিগরি শিক্ষার ওপর অধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। সরকারের এ লক্ষ্য পুরণে আরএডিপিতে (সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি) বরাদ্দ বাড়াতে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে জানা গেছে, দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার জন্য সরকার কয়েকটি বৃহৎ প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে দেশের একশটি উপজেলায় কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ। এছাড়া ৭০টি সরকারি স্নাতকোত্তর কলেজের উন্নয়ন, ৩১০টি উপজেলায় মাধ্যমিক উপজেলা স্কুল নির্মাণ করা এবং একটি কৃষি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন।

এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রয়োজন পড়বে ২১৫ কোটি টাকা। সরকারি তহবিল থেকে বরাদ্দ নিয়ে এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে চায় তারা।

এদিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় দেশের ভৌত অবকাঠামো নির্মাণে আরও কয়েকটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছে, ৩ হাজার বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় নির্মাণ, ১ হাজার বেসরকারি মাদ্রাসার একাডেমিক ভবন নির্মাণ প্রকল্প। এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন করা অত্যন্ত জরুরি। কেননা এসব প্রকল্পের সাথে সরকারের ভাবমুর্তি জড়িত। তাই শিক্ষা মন্ত্রণালয় চলমান এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে এগিয়ে যেতে চায়। তারই ধারাবাহিকতায় শিক্ষা খাতে আরএডিপিতে পর্যাপ্ত বরাদ্দ চেয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। শিক্ষা সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক পরিকল্পনা সচিব ভূইয়া সফিকুল ইসলাম বরাবর এ চিঠি দিয়েছেন।

এ বিষয়ে শিক্ষা সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেন,  শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাস্তবায়িত প্রকল্পগুলো সম্পন্ন করার জন্য আরএডিপিতে বরাদ্দ কমানো উচিত হবে না।

তিনি আরও বলেন, জাতীয় শিক্ষা নীতি অনুমোদন হওয়ার ফলে শিক্ষা ক্ষেত্রে নিরব বিপ্লব ঘটে গেছে। এ ধারাকে অব্যহত রাখতে হবে। তাই আমরা চাই সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে জিওবি (সরকারি তহবিল) খাত থেকে অতিরিক্ত ২১৫ কোটি টাকা বরাদ্দ বৃদ্ধি করা হোক।

এদিকে, পরিকল্পনা কমিশন থেকে জানা গেছে, চলতি অর্থবছরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্প রয়েছে ১৯টি এবং বিনিয়োগ প্রকল্প রয়েছে ৬৯টি। এর মধ্যে চলতি অর্থবছরে শেষ করার কথা রয়েছে ১০টি প্রকল্প।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রস্তাবিত আরএডিপিতে বরাদ্দ চেয়েছে ১ হাজার ৮৭১ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। তবে তাদের প্রস্তাবকে কাটছাঁট করে ১ হাজার ৪৮৬ কোটি ৪ হাজার টাকা পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে ।
এইচকেবি/ এআর