মাসভর নেতৃত্বে স্কয়ার ফার্মা

0
63
Square_Pharmaceuticals
স্কয়ার ফার্মাসিটিউক্যালসের ভবন

Square_Pharmaceuticalsমাসভর লেনদেনের নেতৃত্বে ছিল ওষুধ ও রসায়ন খাতের স্কয়ারফার্মা। এই শেয়ারটি চার সপ্তাহ ধরেই অর্থাৎ পুরো মার্চ মাসের সপ্তাহিক লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করছে। মাসের শেষ সপ্তাহে এই শেয়ারের লেনদেন বেড়েছে ১ দশমিক ৫৭ শতাংশ। পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৬২ কোটি ১৯ লাখ ৯২ হাজার টাকা মূল্যের শেয়ার।

শুধু লেনদেন নয়, শেয়ারের মূল্যের উপরও প্রভাব রেখেছে স্কয়ার ফার্মার শেয়ার দরের ওঠা-নামা। বেশিরভাগ সময়ে দেখা গেছে, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালসের শেয়ারের দাম বাড়লে বাজারে ভালো মৌলসম্পন্ন অন্যান্য কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে স্কয়ার ফার্মা দর হারালে অন্যান্য কোম্পানির শেয়ারের দরও কমেছে।

বিশ্লেষকদের মতে, নানা কারণে স্কয়ার ফার্মার শেয়ারের প্রতি বিশেষ ঝোঁক তৈরি হয়েছে বিনিয়োগকারীদের। সম্প্রতি পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বেড়েছে। তারা হাতেগোনা যে কয়েকটি দেশীয় কোম্পানির শেয়ার পছন্দের তালিকায় রাখেন তার মধ্যে স্কয়ার ফার্মা অন্যতম। কোম্পানিটির উদ্যোক্তাদের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি, মানসম্পন্ন ওষুধ, মুনাফার ধারাবাহিক প্রবৃদ্ধি, আকর্ষণীয় লভ্যাংশ ঘোষণা, ভবিষ্যত সম্ভাবনা-ইত্যাদি কারণে এর শেয়ারে অনেকেই যথেষ্ট আস্থা পান।

গত সপ্তাহে লেনদেনের দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন। এই কোম্পানির লেনদেন কমেছে দশমিক ০৪ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন করেছে ৫৯ কোটি টাকার।

চার সপ্তাহ ধরেই লেনদেনের শীর্ষ তালিকায় রয়েছে পদ্মা অয়েল এবং মেঘনা পেট্রোলিয়াম। এর মধ্যে পদ্মা অয়েলের শেয়ার লেনদেন কমেছে দশমিক ৮৯ শতাংশ। আর মেঘনা পেট্রোলিয়ামের ১ দশিমক ৪৪ শতাংশ লেনদেন কমেছে।

আর নতুন লেনদেন চালু হওয়া এমারেল্ড অয়েলের শেয়ার লেনদেন কমেছে ৫ দশমিক ৬২ শতাংশ। এই শেয়ারের লেনদেন হয়েছে ৪৮ কোটি ৩৩ লাখ ৫০ হাজার টাকার।

লাফার্জ সুরমা সিমেন্টর লেনদেন কমেছে ৩ দশমিক ৪৯ শতাংশ। বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস কোম্পানির লেনদেন বেড়েছে দশমিক ২৮ শতাংশ। গ্রামীণফোনের লেনদেন বেড়েছে ১ দশমিক ৩২ শতাংশ। ন্যাশনাল টিউবসের লেনদেন বেড়েছে ১৪ দশমিক ৬৯ শতাংশ।

আর বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমের শেয়ার দর কমেছে দশমিক ৮৫ শতাংশ।

অর্থসূচক/এমআরবি/