খালেদা-তারেকের দাবি হাস্যকর: সুরঞ্জিত

0
58
suronji sen

suronji sen‘জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি ছিলেন’ বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও তার পুত্র তারেক রহমানের এ দাবিকে উদ্ভট ও হাস্যকর বলে মন্তব্য করলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর সেগুন বাগিচার বীরউত্তম খাজা নিজামুদ্দিন মিলনায়তনে নৌকা সমর্থক গোষ্ঠী আয়োজিত “জাতীয় সংগীতের বিশ্ব রেকর্ড এবং খালেদা জিয়ার নিরবতা” শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

সুরঞ্জিত বলেন, ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল মুজিব নগরের আম্রকাননে বাংলাদেশে প্রথম আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু সভা গঠিত হয়েছে। স্বাধীনতার ঘোষণা অনুযায়ী বাঙ্গালি জাতির প্রথম রাষ্ট্রপতি হন বশেখ মুজিবুর রহমান।

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার ৪৩ বছর পর এসে মা ঢাকায় বসে আর পুত্র লন্ডনে বসে নতুন তত্ত্ব আবিষ্কার করেছেন। এতদিন বলতেন জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষক আর এখন বলছেন তিনি ছিলেন প্রথম রাষ্ট্রপতি।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, বিএনপির এ দাবির না আছে কোনো ঐতিহাসিক, রাজনৈতিক ও সাংবিধানিক ভিত্তি। এটা চরম ইতিহাস বিকৃতি ছাড়া আর কিছুই নয়।

তিনি বলেন, গতকাল বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া আরেকটি কল্পকাহিনী যোগ করেছেন। তিনি বলেছেন, তিনি নাকি মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তিনি নাকি মুক্তিযুদ্ধের নিদের্শ দিয়েছেন। ৯মাস মুক্তিযুদ্ধের সময় ওনি (খালেদা জিয়া) কোথায় ছিলেন। এটা দেশের মানুষ জানে। এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজনৈতিক নেতা হিসেবে আমার রুচিতে বাধেঁ। আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, খালেদা জিয়া বুঝতে পেরেছেন যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষ নিয়ে এ দেশে রাজনীতি করা যাবে না। এ জন্যই তিনি নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা দাবি করছেন।

সুরঞ্জিত সেন বলেন, জাতি যখন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে তখন বিএনপি নেতারা বেসামাল হয়ে পাগলের প্রলাপ করছে। জিয়াউর রহমান নিজেও কোনোদিন দাবি করেনি তিনি দেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি। কৃষক লীগের অর্থ-বিষায়ক সম্পাদক নাজির মিয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদ্দুজ্জামান দুর্জয়, সাম্যবাদী দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য হারুন চৌধুরী, নৌকা সমর্থক গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হুমায়ন কবির মিজি প্রমুখ। জেইউ/এএস