পতনে শুরু, পতনেই শেষ হল মার্চ!

0
104
DSE-Down
সূচক পতন

DSE-Downমার্চ মাসে পুঁজিবাজার পতন দিয়ে শুরু হয়েছে। পতনেই শেষ হল এই মাস। মাসের প্রথম সপ্তাহ শুরু হয়েছিল ডিএসইতে সূচক ও লেনদেনের পতন দিয়ে। শেষ সপ্তাহে্ও তার ব্যাতিক্রম হয় নি। মার্চ মাসে ডিএসইতে প্রধান সূচক কমেছে ২৪১ পয়েন্ট। আর বাজার মূলধন কমেছে ৮ হাজার ৭৭৫ কোটি ১৫ লাখ টাকা।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, মার্চ মাসের শেষ সপ্তাহে আগের সপ্তাহের চেয়ে লেনদেন ও সূচক কমেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)।  লেনদেন কমেছে ৭ দশমিক ১৪ শতাংশ বা  ৮৭ কোটি ৯২ লাখ ১ হাজার ৩৮৯ টাকার। ডিএসইর সব ধরণের মূল্য সূচকও কমেছে। প্রধান সূচক কমেছে ১ দশমিক ১২ শতাংশ বা ৫০ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট।

এর আগের সপ্তাহ অর্থাৎ ২১ মার্চের সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, আগের সপ্তাহের চেয়ে লেনদেন কমে যায় ৪০ দশমিক ০৪ শতাংশ। ডিএসইর সব ধরণের মূল্য সূচকও কমে যায় এই সপ্তাহে। লেনদেনের পরিমাণ কমে যায় ৮২১কোটি ৮৫ লাখ ৪০ হাজার ৪২৬ টাকার।

তার আগের সপ্তাহ অর্থাৎ ১৪ মার্চের সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ডিএসইতে আগের সপ্তাহের চেয়ে সূচক কমে যায় ১১ দশমিক ১৫ শতাংশ। লেনদেন কমে যায় ২৫৭ কোটি ৫৩ লাখ ৩৭ হাজার ৪৮৩ টাকা। সেই সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসের চার কার্যদিবসই কমে সূচক। মাত্র এক কার্যদিবস বাড়ে সূচক।

প্রথম সপ্তাহ অর্থাৎ ৭ মার্চের সপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আগের সপ্তাহের চেয়ে সূচক ও লেনদেন কমে যায়। ডিএসইতে লেনদেন কমে যায় ৮ দশমিক ৮৯ শতাংশ। তবে আগের সপ্তাহের চেয়ে ওই সপ্তাহে ডিএসইএক্স এবং ডিএস৩০ সূচক কমেছে। আর সামান্য বাড়ে ডিএসই শরীয়াহ সূচক ।

বাজার বিশ্লেষকদের মতে, এই মাসে অনেক কোম্পানি লভ্যাংশ দিয়েছে। তারপরও অনেক কোম্পানির শেয়ারের দর কমেছে। এর মূল্য কারণ বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজারের ওপর আস্থা আনতে পারছে না। বিনিয়াগকারীদের আস্থাহীনতার কারণেই কম মূল্যেই শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছেন। এতে সার্বিক বাজারে একটা প্রভাব পড়েছে।

সপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে এক হাজার ১৪২ কোটি ৯৬ লাখ ১৭ হাজার ২৬২ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ২৩০ কোটি ৮৮ লাখ ১৮ হাজার ৬৫১ টাকা।

এর মধ্যে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন ছিল ৮৩ দশমিক ২১ শতাংশ, ‘বি’ ক্যটাগরির লেনদেন ছিল ৩ দশমিক ৯৫ শতাংশ, ‘এন’ ক্যাটাগরির লেনদেন ছিল ৫ দশমিক ৯৪ শতাংশ এবং ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন ছিল ৬ দশমিক ৯০ শতাংশ।

ডিএসই প্রধান সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক কমেছে এক দশমিক ১২ শতাংশ বা ৫০ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে এই সূচক ৪ হাজার ৫৫৮ পয়েন্ট থেকে নেমে ৪ হাজার ৫০৮ পয়েন্টে অবস্থান করে।

গত সপ্তাহে ডিএস৩০ সূচক কমেছে ১ দশমিক ৬৫ শতাংশ বা ২৭ দশমিক ০৩ পয়েন্ট। সপ্তাহের প্রথম দিনে এই সূচকের অবস্থান ছিল ১ হাজার ৬৩৫ পয়েন্টে। আর সপ্তাহের শেষ দিনে এই সূচক অবস্থান করে ১ হাজার ৬০৮ পয়েন্টে।

অপরদিকে শরীয়াহ সূচক কমেছে ৭৯ শতাংশ বা ৭ দশমিক ৮৫ পয়েন্ট। সপ্তাহের প্রথম দিনে এই সূচকের অবস্থান ছিল ৯৮৯ পয়েন্ট। আর সপ্তাহের শেষে এই সূচক দাঁড়ায় ৯৮১ পয়েন্টে।

গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩০৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯৪টির কমেছে ১৮৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির। আর লেনদেন হয়নি ৩টি কোম্পানির।

অর্থসূচক/এমআরবি/