২০ টাকার নগদ ৪ লাখ, অতঃপর…

প্রতিনিধি

0
64

খুলনায় শীতকালীন মেলার নামে আলোচিত চামেলী র‍্যফেল ড্র ও জুয়ার আড্ডায় অভিযান চালিয়ে ১৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। গত মঙ্গলবার রাতে র‌্যাবের -৬ এর সদস্যরা প্রায় ৩ ঘণ্টা এ অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক করে।

এ সময় জুয়ার সঙ্গে জড়িত ১৫ জনকে ১৫ দিন করে কারাদণ্ড দেয় র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। অভিযানের সময় ৮টি জুয়ার বোর্ড ও নগদ ১২হাজার ৩শ’ টাকা জব্দ করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, বাবু (১৯), হাসান (২১), শিপন শেখ (২১), একলাছ ব্যাপরী (৪০), রাজিব (২৬), শাহজালাল (৩০), বিল্লাল (৪০), মিল্টন (৩৫), সাহেব আলী (৪৫), মাসুম সরদার (৩০), সবুজ (২৮), খোকন মুন্সি (৩৮), কামরুল (৫০), পরিমল কুমার (৪৬) ও জাহাঙ্গীর (৩২)
ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন খুলনা জেলা প্রশাসনের এনডিসি মো: জাকির হোসেন।

এ প্রসঙ্গে র‌্যাবের-৬ এর স্পেশাল কোম্পানী কমান্ডার এনায়েত হোসেন মান্নান জানান, কয়েকদিন ধরে মেলার মাঠে গোয়েন্দা নজরদারি ছিলো। মঙ্গলবার অভিযানে ২০ জনকে আটক করে র‌্যাব কার্যালয়ে নিয়ে যাচাই-বাছাই শেষে ৫ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। অভিযানের সময় ৮টি জুয়ার বোর্ড ও নগদ ১২হাজার ৩শ’ টাকা জব্দ করা হয়।

উল্লেখ, খুলনায় দীর্ঘ প্রায় ১ মাস ধরে শীতকালীন মেলার নামে জুয়ার আসর চলছিল মেলা প্রাঙ্গনে। মেলায় র‍্যফেল ড্র, হাউজি, চরকা, বউ খেলা, ‘ওয়ান টেন’সহ বিভিন্ন ধরনের আয়োজন ছিলো। খুলনা মহানগরী, বিভিন্ন উপজেলা এবং , বাগেরহাট, যশোর ও নড়াইলে ২০০টির অধিক ইজিবাইকে মাইকের মাধ্যমে টিকিটি বিক্রি করতো আয়োজকরা। র‍্যফেল ড্রতে ৪ লাখ টাকা পুরস্কারসহ মোট ১০১টি পুরস্কারের ঘোষণা দেওয়া হয়।

মাইকিংয়ে ঘোষণা করা হয়, ২০ টাকার বিনিমিয় যে কেউ পেতে পারেন নগদ ৪ লাখ টাকা, মোটরসাইকেল বা ষাঁড়। এসব নানা প্রলোভোন দিয়ে মেলার আয়োজকরা সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। নানা অভিযোগে খুলনা জেলা প্রশোসনের আইনশৃঙ্খলা মিটিংয়ে মেলায় লটারী বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

অর্থসূচক/শিউলি/এইচজে