বেনাপোলে ২ শ্রমিক গ্রুপের সংঘর্ষে বন্দর কার্যক্রম বন্ধ

প্রতিনিধি

0
69

বেনাপোল স্থলবন্দরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই দল শ্রমিকের মধ্যে সংঘর্ষে দুই শ্রমিক মারাত্মক আহত হয়েছে। এ নিয়ে বন্দর এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পরিস্থিতি শান্ত রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সকাল থেকে বন্দরের অভ্যন্তরে লোড-আনলোড বন্ধ রয়েছে। ক্ষমতাসীন দলের এমপি এবং মেয়রের লোকজন দীর্ঘদিন ধরে বেনাপোল  স্থলবন্দরের শ্রমিকদের দুটি গ্রুপ নিয়ন্ত্রণ করে বলে অভিযোগ রয়েছে।

গত ডিসেম্বরে বন্দরের ঠিকাদারি কাজ পেয়েছে এমপি পক্ষের লোকজন। কিন্তু মেয়র পক্ষের লোকজন কাজ চালিয়ে আসছিল। মঙ্গলবার সকাল দশটারদিকে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই এমপি পক্ষের লোকজন অতর্কিত হামলা চালিয়ে মেয়র গ্রুপের শ্রমিক অফিস ভাংচুর করে তাদের বন্দর এলাকা থেকে তাড়িয়ে দেয় এবং এতে মেয়র গ্রুপের দুই জন আহত হয়। এ নিয়ে বন্দর এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তে সব ধরণের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।  স্কুল, কলেজ, কাস্টম অফিস বন্ধ হয়ে যায়।

পুলিশ দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে সক্ষম হলেও বন্দরের কাজকর্ম বর্তমানে বন্ধ রয়েছে। এ ঘটনার পর  শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ নুরুজ্জামান ও যুবলীগের সভাপতি অহেদুজ্জামানের বাড়িতে সন্ত্রাসীরা বোমা নিক্ষেপ করে। বোমা হামলার পেছনে মেয়রগ্রুপের লোকজনকে জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি অপূর্ব হাসান জানান, বন্দর এলাকায় সব কিছু স্বাভাবিক রয়েছে এবং ২টি বোমা পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

অর্থসূচক/এসএন/জেডআর