২০১৮ সালে হজে যাবেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
61

২০১৮ সালে বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ করতে পারবেন। সরকারিভাবে ৭ হাজার ১৯৮ জন আর বেসরকারিভাবে যাবেন ১ লাখ ২০ হাজার জন। এমনটাই জানিয়েছেন ধর্মমন্ত্রী আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মতিউর রহমান।

আজ রোববার সকালে সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, আগামী মাসের ১০ তারিখের মধ্যে ঘোষণা করা হবে এবারের হজ প্যাকেজ। হজযাত্রীদের ৫০ ভাগ বাংলাদেশ বিমান ও বাকি ৫০ ভাগ সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইনস পরিবহন করবে। হজযাত্রীর কোটা বাড়ানোর জন্য সৌদি সরকারের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে।

সৌদি কর্তৃপক্ষ হজযাত্রীদের ক্ষেত্রেও ভ্যাট প্রযোজ্য করতে চায় জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, তবে বাংলাদেশের হজযাত্রীরা যাতে ভ্যাটের আওতামুক্ত থাকেন সে ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকার আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া ভ্যাট কোথায় কোথায় ছাড় পাওয়া যাবে সেটা এখনো স্পষ্ট হয়নি। সেগুলো জানার পর আমরা প্যাকেজ নির্ধারণ করতে পারব। এ জন্য সপ্তাহ দুয়েক অপেক্ষা করতে হবে।

পানিপথে জাহাজের মাধ্যমে হজযাত্রী পরিবহনে বাংলাদেশের প্রস্তাব সৌদি সরকার অনুমোদন করেনি জানিয়ে ধর্মমন্ত্রী বলেন, এ বছর ভারত থেকে ৫-৭ হাজার হজযাত্রী জাহাজে সৌদি যেতে পারবেন। সেই অনুমতি দিয়েছে সৌদি সরকার। এটা জানার পর বাংলাদেশের পক্ষ থেকেও জাহাজে করে হজযাত্রী পাঠানোর প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সৌদি সরকার তা অনুমোদন করেনি।

ধর্মমন্ত্রী জানান, এবারের হজের জন্য এরই মধ্যে মুসল্লিরা প্রাক-নিবন্ধন করেছেন। রেজিস্ট্রেশন করেছেন দুই লাখ ২৯ হাজার ৭৬৪ জন। এটা বাছাই করার পর ১ ফেব্রুয়ারি থেকে রেজিস্ট্রেশন শুরুর কথা রয়েছে। যা চলবে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

এসময় ধর্মসচিব জানান, গত বছর হজ ব্যবস্থাপনায় ২৪৫টি এজেন্সির বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অর্থসূচক/আজম/এইচজে