নতুন রাজনৈতিক দল পিপিপি’র আত্মপ্রকাশ

0
74
ppp

pppদেশের ৪৩তম স্বাধীনতা দিবসে আত্মপ্রকাশ ঘটলো পিপলস্ পাওয়ার পার্টি (পিপিপি) নামের নতুন একটি রাজনৈতিক দলের। এ উপলক্ষে দলটি বুধবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন দলের চেয়ারম্যান এস. ফাহিম।

এ সময় এস ফাহিম বলেন, একটি দল দেশের সাধারণ মানুষের ভোটাধিকার এবং নেতা নির্বাচনের অধিকার কেড়ে নিয়ে জনগণের শত্রুতে পরিণত হয়েছে। অন্যদিকে, অপরপক্ষ হামলা-আগুন-ভাংচুর ইত্যাদি ঘটানোর ফলে জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তাই জনগণের অধিকার নিয়ে কথা বলার জন্যই পিপিপি’র জন্ম হয়েছে।

কোনো রাজনৈতিক দলের বা জোটের সঙ্গে যোগদান করবেন কিনা এ প্রশ্নের জবাবে দলের চেয়ারম্যান বলেন, কোনো রাজনৈতিক জোটে যোগ দেব না। তবে, নির্দিষ্ট কোনো দাবির প্রেক্ষিতে যে কারও সঙ্গে যুগপৎ আন্দোলন হতে পারে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে পিপিপি’র চেয়ারম্যান বলেন, যুদ্ধাপরাধী জামায়াতের বিচার করা কিংবা জামায়তকে নিষিদ্ধের ব্যাপারেও আমাদের কিছু বলার নাই। আইনি প্রক্রিয়ায় যা হওয়ার তাই হবে। এতে পিপিপি’র কোনো ভূমিকা নেই।

দলের ঘোষণাপত্র পাঠ করেন মহাসচিব মেজর (অব:) মীর হোসেন চৌধুরী। এ সময় তিনি বলেন, বর্তমানে সংবিধানকে নিজেদের মত পরিবর্তন করে এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে সরকার দেশে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা চালু করেছে।

দেশ অনেকটাই নির্বিঘ্নে চলছে, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর জনগণের তো কোনো সমস্যা হচ্ছে না। তাহলে নতুন দলের আত্ম প্রকাশের কি দরকার? অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী এক বক্তা এমন প্রশ্ন রাখলে মীর হোসেন কিছুটা উত্তেজিত হয়ে বলেন, প্রতিদিনের পত্রিকার পাতা খুললেই দেখা যায় বর্তমানে দেশে কি অবস্থা বিরাজ করছে। দেশে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ মারা যাচ্ছে, যেখানে-সেখানে বেওয়ারিশ লাশ পাওয়া যাচ্ছে, যানবাহন ও ঘরবাড়ি পুড়ছে।

উপজেলা নির্বাচনে সহিংসতার পর নির্বাচন কমিশনও বলছে তাদের দেওয়া নির্দেশ প্রশাসন মানছে না। এর মানে হচ্ছে সরকার পুরো প্রশাসনকে নিজেদের মতো করে সাজিয়েছে।

বর্তমান সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, সারাদেশে উপজেলা নির্বাচনে ব্যপক সহিংসতা হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় ব্যালট বাক্স ছিনতাই হয়েছে ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে মহাসচিব বলেন, এদেশে কেন ১০ ট্রাক অস্ত্র আনা হল। এই জন্য খালেদা জিয়াকেও বাংলাদেশের মানুষের কাছে জবাবাদিহি করতে হবে।

এ সময় জনগণের অবাধ ভোটাধিকার নিশ্চিত করা, দুর্নীতি ও সন্ত্রাসমুক্ত দেশ গঠন করা এবং আগামি শতাব্দীর জন্য সমৃদ্ধ ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় যাদের মাঝে রয়েছে তাদেরকে পিপলস্ পাওয়ার পার্টিতে যোগদানের আহ্বান জানিয়েছে দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ফখরুল আহসান রানা।

এই আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব শেখ মোহাম্মদ বদরুল আলম শাহ, যুগ্ম-মহাসচিব নূর মোহাম্মদ, সাংগঠনিক-সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন মুকুল, এস এম কামরুল হাসান, প্রচার-সম্পাদক আবু সুফিয়ান সুমন, দপ্তর-সম্পাদক শেখ হীরক জয়ন্ত প্রমুখ।

জেইউ/এএস