বিমানকর্মীর শরীরে ৭ কেজি স্বর্ণ!

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
141

সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এক কর্মীর শরীরে বিশেষভাবে লুকায়িত অবস্থায় ৭ কেজি স্বর্ণ আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

আজ বিকেল ৪টা ৫০ মিনিটে স্বর্ণসহ বিমানের ক্লিনার মো. কারিমুল ইসলামকে আটক করা হয়। শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মইনুল খান জানান, শুল্ক গোয়েন্দা আজ সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে অভিযান চালিয়ে বিমানের ক্লিনারের শরীরে বিশেষভাবে লুকায়িত অবস্থায় ৬০ পিস স্বর্ণের বার আটক করেছে।

আটক স্বর্ণের  মোট ওজন ০৭ কেজি। প্রতিটি বারের ওজন ১১৬ গ্রাম। সিলেট বিমানবন্দর কাস্টমস ও বিমানের কেবিন ক্রুদের সহযোগিতায় এই স্বর্ণ আটক করে শুল্ক গোয়েন্দারা।

এই স্বর্ণ বিমানের পরিচ্ছন্ন কর্মী মো. কারিমুল ইসলাম এর প্যান্টের মধ্যে বিশেষভাবে লুকায়িত ছিল।

আসামি মো. কারিমুল ইসলাম বিমানের একজন সহকারি মেকানিক ৷ তার আইডি নং-০০১৩২৭ ৷ পিতা. শাখাওয়াত হোসেন,  গ্রাম: পাথারপাড়া, সিরাজগঞ্জ ৷

এই বিমানকর্মী ২০১৫ সাল থেকে সিলেট এয়ারপোর্টে কর্মরত আছেন। আজ বিকাল ৪ টা ৫০ মিনিটে ফ্লাই দুবাই এর এফ জেড ৫৯৫ ফ্লাইটটি দুবাই টু সিলেট অবতরণ করে।

তিনি জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে শুল্ক গোয়েন্দা দল বিশেষ নজরদারি করতে থাকে। বিমানের অভ্যন্তরে থাকা অবস্থায় শুল্ক গোয়েন্দা দল হাতে নাতে বিমানের কর্মীকে আটক করেছে ৷

বিমানের ফ্লাইটটি অবতরণের পরপর তিনি ভেতরে ক্লিন করার সময় স্বর্ণের পিসগুলো বিমানের সিট থেকে তুলে নিজের প্যান্টে লুকিয়ে ফেলেন।

শুল্ক গোয়েন্দার দল তাকে এসময় হাতে নাতে স্বর্ণসহ ধরে ফেলে। এই ব্যাপারে আটককৃত বিমানের মেকানিক মো. কারিমুল ইসলামকে  শুল্ক আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আটক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। স্বর্ণ চোরাচালানে সহায়তার জন্য তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান মইনুল খান।

অর্থসূচক/রহমত/জেডআর