‘আমরা অসম্ভবকে সম্ভব করেছি’

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
72
আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) করদাতাবান্ধব, রাজস্ববান্ধব সংস্কৃতি চর্চার চলমান প্রয়াসে মতবিনিময় সভা ও রাজস্ব সংলাপে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান। ছবি মহুবার রহমান

আয়কর দিয়ে, আয়কর নিয়ে, আয়কর নেটে আসবো কি আসবো না-এ নিয়ে করদাতাদের মধ্যে যে উৎকণ্ঠা ছিল তা দূর হয়েছে। আর এই উৎকণ্ঠা জয় করার অসম্ভবকে সম্ভব করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) করদাতাবান্ধব, রাজস্ববান্ধব সংস্কৃতি চর্চার চলমান প্রয়াসে মতবিনিময় সভা ও রাজস্ব সংলাপে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান। ছবি মহুবার রহমান

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) করদাতাবান্ধব, রাজস্ববান্ধব সংস্কৃতি চর্চার চলমান প্রয়াসে মতবিনিময় সভা ও রাজস্ব সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে আমরা অনেক সমৃদ্ধ হয়েছি। আগে কর আইনজীবী-এনবিআর কর্মকর্তাদের মধ্যে যে দূরত্ব ছিল এখন সেই দূরত্ব নেই। মানবিকভাবে আমরা একে অপরের কাছে এসেছি।

ট্যাক্স ট্রাইব্যুনাল স্বাধীন নয়-কর আইনজীবীদের এমন অভিযোগের জবাবে চেয়ারম্যান বলেন, ট্রাইব্যুনালের প্রেসিডেন্ট সম্পূর্ণ স্বাধীন। এর ওপর এনবিআরের কোনো প্রভাব নেই। ট্রাইব্যুনালের সঙ্গে এনবিআরের কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

কনসালটেন্সি কমিটি করা ও এ কমিটি কর আইনজীবীদের সব বিষয় আলোচনা, মতামত, নিষ্পন্ন করবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিদ্যমান আইনের আওতায় কোথায় কোথায় উন্নতি সাধন, অডিট, ডেপুটি কমিশনারকে ক্ষমতায়ন করা, কমিশনারদের মূল্যায়ন, প্রত্যক্ষ কর আইনকে যুযোপযোগি করাসহ কর আইনজীবীরা যেসব দাবি করেছেন তা এ কমিটি মূল্যায়ন করবেন।

প্রত্যক্ষ কর আইনের যে খসড়া প্রণীত হচ্ছে তাতে উপযুক্ত মতামত প্রদানের আহ্বান জানিয়ে চেয়ারম্যান বলেন, এ মতামতের মূল্যায়ন করা হবে। এ আইন প্রণয়নের মাধ্যমে আমরা বহুদূর যাব।

চেয়ারম্যান বলেন, বছর প্রায় শেষ। আমরা যদি পেছনে ফিরে তাকাই দেখব আমরা অসম্ভবকে সম্ভব করেছি। সারাদেশে আয়কর দিয়ে, আয়কর নিয়ে যে একটা উৎকণ্ঠা ছিল, আমরা আয়কর নেটে আসবো কি আসবো না। আয়কর বিভাগ ও আয়কর আইনজীবীরা কেমন সে ধরনের অনেক প্রশ্ন ছিল। আজকের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমাদের সুস্পষ্ট জবাব হলো, আয়কর বিভাগ ও আয়কর আইনজীবীরা একটি স্বচ্ছ, করদাতাবান্ধব এবং জবাবদিহিমূলক পরিবেশে তারা কাজ করছেন। আয়কর বিভাগ, আয়কর আইনজীবীরা আর রাজস্ব ব্যবস্থা তথা করদাতাদের মধ্যে আর কোনো দূরত্ব তৈরি করবেন না বলে ঘোষণা দেন চেয়ারম্যান।

তিনি বলেন, আয়কর বিভাগ নিয়ে আর কোনো ভীতি নয়। আয়কর বিভাগ একটি অত্যন্ত স্বচ্ছ, দক্ষ, জবাবদিহিমূলক বিভাগ। এটা সব সময় করদাতাদের পাশে থাকবে। উন্নয়নের অক্সিজেন রাজস্ব আহরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

কর আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে চেয়ারম্যান বলেন, আমরা আপনাদের অত্যন্ত মর্যাদার চোখ ও সম্মানীয় অংশ হিসেবে দেখি। এজন্য এনবিআর এবার ৭ হাজার ২৯৯ জন আইটিপি তথা কর আইনজীবীকে সনদপত্র দেওয়া হয়েছে। তাদের শপথ করানো হয়েছে।

তিনি বলেন, কর আইনজীবীদের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ হল আমরা আপনাদের যে মর্যাদা দিচ্ছি তা অক্ষুণ্ন রাখা। এ মর্যাদা ধরে রাখতে হবে। আয়কর বিভাগ-আয়কর আইনজীবীরা হাতে হাত ধরে চলছে।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) করদাতাবান্ধব, রাজস্ববান্ধব সংস্কৃতি চর্চার চলমান প্রয়াসে মতবিনিময় সভা ও রাজস্ব সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। ছবি মহুবার রহমান

অনুষ্ঠানে কর আইনজীবীরা কর আইনজীবীদের জন্য কাউন্সিল গঠন, ট্যাক্স ট্রাইব্যুনাল ও আপীলকে স্বাধীনতা দেওয়া, অডিটের নামে ভীতি দূর, কর মামলা পরিচালনায় অবৈধ প্রতিনিধিত্ব বন্ধ করাসহ বেশ কিছু দাবি তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বৃহৎ করদাতা ইউনিটের কমিশনার মো. আলমগীর হোসেন। ঢাকা ট্যাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. বদিউজ্জামান, বাংলাদেশ ট্যাক্স ল’ইয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মনিরুল হুদা ও মহাসচিব এমএ গফুর মজুমদার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

উপস্থিত ছিলেন, ট্যাক্স আপীলাত ট্রাইব্যুনালের প্রেসিডেন্ট ড. মাহবুবুর রহমান, এনবিআর সদস্য মো. আব্দুর রাজ্জাক, মীর মুস্তাক আলী, মো. সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

অর্থসূচক/রহমত/এসএম