আর কয়দিন পর লাশ খুঁজে পাওয়া যাবে না: ব্যারিস্টার রফিকুল

0
78
Barister Rafikul Islam

Barister Rafikul Islamদেশে গুম-খুন যেভাবে শুরু হয়েছে তাতে করে আর কয়দিন পরে লাশ খুঁজে পাওয়া যাবে না। কারণ এতো লাশ দেখলে জণগণের কাছে সরকার প্রশ্নবিদ্ধ হবে বলে মন্তব্য করলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া।

সোমবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে ধানের শীষ সমর্থক ফোরাম আয়োজিত ‘২৪ মার্চ স্বৈরাচার মাস’ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

নির্বাচনের নামে সংবিধানের লঙ্গন করা হয়েছে এমন অভিযোগ করে রফিকুল বলেন, ভারতের কমপক্ষে ১০টি পত্রিকায় বলেছে ৫ জানুয়ারির নির্বাচন আসলে নির্বাচন নয়। সেটা সাজানো একটা ঘটনা মাত্র।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা যেভাবে সাজিয়েছেন ঠিক সেইভাবেই নির্বাচন হয়েছে এমন ধরনের লেখাও লিখেছে ভারতের পত্রিকাগুলো।

স্বৈরাচারী এরশাদকে ক্ষমতার অংশীদারি করে বেশি দিন ক্ষমতায় থাকতে পারবে না সরকার উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, পৃথিবীর ইতিহাসে স্বৈরচারের নির্মূলের অনেক ইতিহাস আছে। তাই স্বৈরাচারের পতন সুনিশ্চিত।

তিনি বলেন, এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে টাকা এনে খালেদা জিয়া চ্যেরিটেবল ট্রাস্ট গঠন করেছে। যে প্রতিষ্ঠান তিনি করেছেন এতিম-অসহায়দের জন্য সেই প্রতিষ্ঠানকে ঘিরে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে হয়রানি করা হচ্ছে।

খালেদা জিয়া এই ট্রাস্টের টাকা আত্মস্বাত করেছে এটা এদেশের কোনো উন্মাদও বিশ্বাস করবে না বলে জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের মামলা প্রত্যাহারের হিড়িক লেগেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, শেখ হাসিনা দলের নেতা-কর্মীদের ৭ হাজার ১৫৩ টি মামলা প্রত্যাহার করেছে। অথচ মিথ্যা মামলা দিয়ে বিরুধীদলের নেতা-কর্মীদের জেলে নেওয়া হচ্ছে।

এ সময় তিনি বলেন, আজ যদি খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকতেন তাহলে শেখ হাসিনার কি অবস্থা হতো সেটা কি ওনি একবার ভাবছেন?

সংগঠনের সভাপতি ড. মো. গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সাংগঠনিক-সম্পাদক খলিলুর রহমান, স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি মো. রহমত উল্লাহ প্রমুখ।

জেইউ/এসএস/এএস