চতুর্থ ধাপে এগিয়ে গেল আ. লীগ সমর্থীত প্রার্থীরা

0
80
Faridpur Upazilla Election Start Pic
ছবি: ফাইল ছবি
Faridpur Upazilla Election Start Pic
ছবি: ফাইল ছবি

চতুর্থ উপজেলা নির্বাচনে তৃতীয় ধাপ পর্যন্ত পিছিয়ে থাকার পর চতুর্থ ধাপে এগিয়ে গেল আওয়ামী লীগ সমর্থীত প্রার্থীরা।তবে জোটগতভাবে এখনও এগিয়ে বিএনপি জামায়াত সমর্থীত প্রার্থীরা।

চতুর্থ ধাপে ৪১ জেলা ৯১ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে বেসরকারিভাবে ৮৮টি উপজেলার ফলাফল পাওয়া গেছে। তিনটি উপজেলার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা স্থগিত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ক্ষমতানীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত ৫৪ জন, বিএনপি সমর্থিত ২৫ জন, জামায়াত সমর্থিত ৫ জন এবং অন্যান্য ৪ জন বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

চার দফায় মোট ৩৭৮ টি উপজেলার নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ ১৭১টি, বিএনপি সমর্থীতরা ১৪০ টি, জামায়াত ৩৩টি ও অন্যান্যরা পেয়েছে ৩৫ টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে জয়লাভ করেছে।

চতুর্থ ধাপের ফল

আওয়ামী লীগের বিজয়ী ৫৪ জন

চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয়ীরা হলেন, ফেনীর ফুলগাজীতে একরামুল হক ইকরাম, সোনাগাজীতে জেডএম কামরুল আনাম, কিশোরগঞ্জের মিঠামইনে এডভোকেট আব্দুস শহীদ ভুইয়া, ইটনায় চৌধুরী কামরুল হাসান, কটিয়াদিতে আব্দুল ওয়াহহাব আইনুদ্দিন, ভোলার মনপুরায় শেলিনা আক্তার চৌধুরী, তজুমুদ্দিনে অহিদ উল্ল্যাহ জসিম, দৌলতখানে মনজুরুল খান, পিরোজপুর সদরে মজিবুর রহমান খালেক, পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া আশরাফুর রহমান, পাবনার ঈশ্বরদীতে মোখলেছুর রহমান মিন্টু, পাবনার ফরিদপুরে খলিলুর রহমান সরকার, ঝালকাঠি সদরে সুলতান হোসেন খান, কাঠালিয়াতে মো. ফারুক সিকদার, নলছিটিতে ইউনুছ লস্কর, রাজাপুরে মনিরুজ্জামান মনি, সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ফিরোজ আহমেদ স্বপন , খুলনার বাটিয়াঘাটায় আশরাফুল আলম খান, তেরখাদায় সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু, রুপসায় কামাল উদ্দিন,ফুলতলা এস এম আকরাম , দাকোপে শেখ আবুল হোসেন, দিনাজপুরের বোচাগঞ্জে ফরহাদ হাসান চৌধুরী ঈগলু, সিলেট সদরে আশফাক আহমেদ , চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে আবু মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ফিরোজ আল মামুন,টা ঙ্গাইলের কালিহাতিতে মাজহারুল ইসলাম ঠান্ডু, মধুপুরে সারোয়ার আলম খান, ভুয়াপুরে এডভোকেট আবদুল আলিম, চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে আতাউল হক, রাউজানে এহসানুল হায়দার চৌধুরী, রাঙ্গুনিয়ায় মো. আলী শাহ, আনোয়ারায় তৌহিদুল হক, ফটিছড়িতে তৌহিদুল আলম, পটুয়াখালী সদরে তারিকুজ্জামান মনি, পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে আবু বকর সিদ্দিক (বিদ্রোহী), গলাচিপায় শামসুজ্জামান লিটন, বাউফলে ইঞ্জিনিয়ার মজিবর রহমান, মৌলভীবাজার শ্রীমঙ্গলে রনদীপ কুমার দে, কমলগঞ্জে রফিকুর রহমান, যশোর সদরে শাহীন চাকলাদার, কেশবপুরে আমীর হোসেন , বাগেরহাট চিতলমারী মুজিবর রহমান শামীম, মোল্লাহাটে মোহাম্মদ শাহীনুল আলম ছানা, কুমিল্লার মেঘনায় মো. আবদুস সালাম, বরিশালের বানারীপাড়ায় গোলাম ফারুক, উজিরপুরে হাফিজুর রহমান ইকবাল, আগৈলঝড়ায় গোলাম মোর্তজা খান , হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে আলমগীর চৌধুরী, লাখাই মুশফিউল আলম আজাদ (বিদ্রোহী) , আজমিরীগঞ্জ মো. আতর আলী (বিদ্রোহী), ব্রাক্ষণবাড়িয়ার নাসিরনগরে মনিরুজ্জামান সরকার ,ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে ফারুক আহমেদ,রাজশাহীর বাগমারায় জাকিরুল ইসলাম সান্টু।

বিএনপির বিজয়ী ২৫ জন

বিএনপির বিজয়ীরা হলেন, ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডে মো. আবদুল মজিদ, বরগুনার বেতাগীতে মো. শাহজাহান কবির, নেত্রকোনার মদনে এমএ হারেছ, ব্রাক্ষণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ইঞ্জিনিয়ার মোসলেহউদ্দিন , টাঙ্গাইলের নাগরপুরে আব্দুস সামাদ দুলাল, দিনাজপুরের ফুলবাড়িতে অধ্যক্ষ মো. খুরশীদ আলম মতি, সিলেটের কানাইঘাটে আশিক চৌধুরী,কিশোরগঞ্জের ভৈরবে মো. গিয়াসউদ্দিন (সংস্কারপন্থী), সুনামগঞ্জের শাল্লায় গনেন্দ্র চন্দ্র সরকার,ধর্মপাশায় মোতালিব খান, সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে আব্দুলাহ আল মামুন, চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে দেলোয়ার হোসেন মিয়াজী, শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে একে এম মোখলেছুর রহমান রিপন , নাটোরের বড়াইগ্রামে একরামুল আলম, মৌলভীবাজার সদরে মিজানুর রহমান মিজান, ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জে জিয়াউল ইসলাম মিয়া কক্সবাজারের রামুতে আহমেদুল হক চৌধুরী , বগুড়ার গাবতলী মোরশেদ মিল্টন, ঢাকার ধামরাইয়ে তমিজ উদ্দীন, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে আব্দুর রহিম, নড়াইল সদর মনিরুজ্জামান, রাজশাহীর পুটিয়ায় আনোয়ারুল ইসলাম জুম্মা (বিদ্রোহী), তানোরে ইমরান আলী মোল্লা, গাজীপুরের কালিয়াকৈরে হেলালউদ্দিন, কুমিল্লার বরুড়ায় আবদুল খালেক চৌধুরী।

জামায়াতের বিজয়ী ৫ জন

জামায়াতের বিজয়ী হলেন, জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে মোস্তাফিজুর রহমান, পিরোজপুরের জিয়ানগরে জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ছেলে মাসুদ সাঈদী, চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় মো. জসিমউদ্দিন, বাঁশখালী জহিরুল ইসলাম , বান্দরবানের নাইক্ষংছড়িতে তোফাইল আহম্মদ।

অন্যান্য বিজয়ী ৪ জন

অন্যান্যর মধ্যে বিজয়ী হয়েছেন পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় জাতীয় পার্টি-জেপি সমর্থিত প্রার্থী আতিকুল ইসলাম তালুকদার উজ্জ্বল বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন, কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে জাতীয় পার্টি-জাপার কামালউদ্দিন, রাঙামাটির জুড়াছড়িতে জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সমর্থিত উদয় জয় চাকমা, হবিগঞ্জ সদরে সৈয়দ আহমদুল হক (স্বতন্ত্র)।