অনুমোদনের অপেক্ষায় আইডিআরএ’র জনবল কাঠামো

0
66
আইডিআরএ

idra organogramঅবশেষে অনুমোদন পেতে যাচ্ছে বিমা সংস্থাগুলোর নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) জনবল কাঠামো। প্রস্তাবিত জনবল কী কাজে লাগাবে তা স্পস্ট করে জানাতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে বিমা আইডিআএকে প্রয়োজনীয় তথ্য পাঠাতে বলেছে। আইডিআরএ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি মাসের মাঝামাঝি আইডিআরএ-এর কাছে ওই চিঠি পাঠিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। এর আগে গত ৫ ফেব্রুয়ারি অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিবের কাছে প্রস্তাবিত জনবল কাঠামো অনুমোদনের অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দেয় আইডিআরএ।

সূত্র জানায় আইডিআরএ’র পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে বিষয়টি চুড়ান্ত করে মন্ত্রণালয়কে জানানো হয়ছে। চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, আইডিআরএ’র জন্য অস্থায়ীভাবে রাজস্ব খাতে ১৯৫টি পদ সৃজনের প্রস্তাবের বিপরীতে ৯৪ জনবল নিয়োগের জন্য অস্থায়ীভাবে রাজস্ব খাতে পদ সৃজনে এবং যানবাহন ও সরঞ্জামাদি টিওএন্ডইভুক্তকরণে শর্তসাপেক্ষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সম্মতি দিয়েছিল, তা কর্তৃপক্ষের কার্যক্রম পরিচালনায় আপতত যথেষ্ট। তবে ভবিষ্যতে প্রয়োজনবোধে সরকারের অনুমোদন সাপেক্ষে কর্তৃপক্ষ অতিরিক্ত জনবল নিয়োগ দেওয়ার উদ্যোগ নেবে। এজন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ করা হয়।

আইডিআরএর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ১০১টি পদ সৃষ্টির লক্ষে ২৩ ফেব্রুয়ারি অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠায়। চিঠিতে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের সময় অনুসারি (টাইম বাউন্ড) কর্মসূচির (একটিভ প্লান অব প্রজেক্ট) বিবরণ ও আইডিআরএর প্রস্তাবিত অর্গানোগ্রামে একই পদনাম একাধিকবার অন্তভূক্তকরণের ত্রুটি সংশোধনসহ সামগ্রিক পদবিন্যাস পর্যালোচনা করে সংশোধিত অর্গানোগ্রাম পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান  মো. কুদ্দুস খান বলেন, চিঠি পাওয়ার পর সকল তথ্য অর্থমন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। আইডিআরএর তথ্য পাওয়ার পর অর্থ মন্ত্রণালয় তা যাচাই-বাছাই শেষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠাবে।

তিনি বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব একটি ইন্টারন্যাশনাল সেমিনারে যোগ দিতে যুক্তরাজ্য গিয়েছেন।তিনি দেশে ফিরে এলেই বিষয়টি চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, বিমা শিল্পের শৃঙ্খলা ফেরানো ও বিদ্যমান আইনকে যুগোপযোগী করতে ২০১০ সালের মার্চ মাসে নতুন বিমা আইন প্রণয়ন করা হয়। এর আলোকে ২০১১ সালে জানুয়ারিতে গঠিত হয় বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ। শুরু থেকেই সংস্থাটিতে তীব্র জনবল সঙ্কট রয়েছে। ওই সময়ে স্বাভাবিক কাজ চালিয়ে নিতে বিভিন্ন সময়ে কয়েক দফায় কিছু অফিসার, জুনিয়র অফিসার এবং এমএলএসএস অস্থায়ীভাবে নিয়োগ দেওয়া হয়। কিন্তু তাদের চাকরি স্থায়ী হওয়া নিয়ে বিরাজমান জটিলতায় গত দুই বছরে ১৬ জন অফিসার ও জুনিয়র অফিসার আইডিআরএ ছেড়ে চলে গেছেন। ফলে বর্তমানে সংস্থাটিতে চেয়ারম্যান, সদস্য ও এমএলএসএস মিলে মাত্র ৫৫ জন স্টাফ রয়েছে। এদের মধ্যে এমএলএসএস সংখ্যা বাদ দিলে কর্মকর্তার সংখ্যা দাঁড়ায় মাত্র ৩৮ জন।

জিইউ