‘দুর্ঘটনা এড়াতে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার সাহায্য নেওয়া হবে’

0
58
shajahan

shajahan1গার্মেন্টস খাতে দুর্ঘটনা এড়াতে সরকার ও মালিকপক্ষ আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার সাথে যৌথভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে চলছে। এ সমস্যার সমাধানে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার সাহায্য নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন  গার্মেন্টস শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক শাজাহান খান।

রোববার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে “গার্মেন্টেস শ্রমিক সমন্বয় পরিষদ” আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

শাজাহান খান বলেন, আমাদের বাৎসরিক আয়ের ১৪ ভাগ এবং রপ্তানি আয়ের প্রায় ৮০ ভাগ আসে গার্মেন্টস খাত থেকে। মাত্র তিন দশকে গার্মেন্টস শিল্পে আমরা বিশ্বে দ্বিতীয় স্থান দখল করেছি। আর এই শিল্পে ৫ সহস্রাধিক কারখানায় ৪০ লক্ষাধিক শ্রমিক কাজ করছে।

তিনি বলেন, গার্মেন্টস সেক্টরে যে সকল দুর্ঘটনা ঘটে তা আমাদের কারোরই কাম্য নয়। আমরা শ্রমিকদের নিরাপদ কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে চাই। আমরা যদি এই বিপুল জনগোষ্ঠীকে সঠিক কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে দিতে পারি তবে তারা জনশক্তিতে রূপান্তরিত হতে পারবে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ একটি জনবহুল দেশ। জনসংখ্যার আধিক্যতায় পিছিয়ে না পড়ে আমাদেরকে এ জনসংখ্যাকে জনশক্তিতে রুপান্তরিত করতে হবে।

তিনি বলেন, ২৬ মার্চ আমাদের শ্রমিক সমাজও জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়ার তালিকায় থাকবে। আমরাও দেশের প্রয়োজনে যেকোনো প্রকার আত্মত্যাগ করতে প্রস্তুত থাকবো।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, গার্মেন্টস শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের সদস্য সচিব বদরুদ্দোজা নিজাম, সদস্য আমিরুল হক আমিন, আবুল হোসাইন, সালাউদ্দিন স্বপন, শামিমা নাসরিন, নুরুল ইসলাম প্রমুখ।

এমআর/সাকি