খাদ্যে লেনদেন বেড়েছে

0
65
food share trade increased

food share trade increasedঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)খাদ্য ও বিবিধ খাতে লেনদেন বেড়েছে। গত সপ্তাহে ডিএসইতে দৈনিক গড় লেনদেন ২৫ শতাংশ কমলে খাদ্য খাতে ঘটেছে উল্টা। এ খাতে দৈনিক গড় লেনদেন বেড়েছে ১০৮ শতাংশ। এদিকে বিবিধ খাতের লেনদেন বেড়েছে ১৮ শতাংশ। পুরো সপ্তাহে মোট লেনেদেনে খাদ্য খাতের অংশ ছিল ১৫ শতাংশ। আর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে বিবিধ খাতে। মোট লেনদেনের ৮ শতাংশ এসেছে এই খাত থেকে।

বিশ্লেষণে দেখা যায়,গত সপ্তাহে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বেশির ভাগ খাতের লেনদেন কমেছে। মোট তালিকাভুক্ত ২০ টি খাতের মধ্যে ১৭টি খাতের লেনদেন কমেছে। বাকী ৩টি খাতের লেনদেন বেড়েছে। এর মধ্যে বেশির ভাগ বড় খাতের লেনদেন কমেছে। বড় বা ভালো খাতের মধ্যে রয়েছে-ব্যাংক,জ্বালানি এবং ওষুধ খাত।

ব্যাংক খাতের লেনদেন কমেছে ২৩ শতাংশ। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া খাতের মধ্যে ৮ শতাংশ ছিল এই খাতের। ৫০ শতাংশ লেনদেন কমেছে বস্ত্র খাতের। মোট লেনদেনে এই খাতের অংশ ছিল ৭ শতাংশ ছিল এই খাতের। ৫২ শতাংশ লেনদেন কমেছে বিমা খাতের। লেনদেনে মোট  ৫ শতাংশ ছিল এই খাতের। এছাড়া ৪৮ শতাংশ লেনদেন কমেছে সিমেন্ট খাতের। ডিএসইতে মোট লেনদেনের ৬ শতাংশ ছিল এই খাতের।

এছাড়া ৪৭ শতাংশ লেনদেন কমেছে ট্যানারী খাতের। ডিএসইতে মোট লেনদেনের ২ শতাংশ ছিল এই খাতের। ওষুধ ও রসায়ন খাতের লেনদেন কমেছে ২৩ শতাংশ। ডিএসইতে মোট লেনদেনের ১২ শতাংশ ছিল এই খাতের। লেনদেন কমার তালিকায় রয়েছে প্রকেৌশল খাত। এ খাতের লেনদেন কমেছে ১৬ শতাংশ।

অপরদিকে লেনদেন কমেছে জ্বালানি খাতের ৪৫ শতাংশ,তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের ১৭ শতাংশ,মিউচুয়াল ফান্ড খাতের ২৬ শতাংশ,ব্যাংক বহিভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ২৭ শতাংশ,পেপার এন্ড প্রিন্টং এর ৩০ শতাংশ,সেবা ও আবাসন খাতের ২ শতাংশ,টেলিকমিউনিকেশন খাতের ২৮ শতাংশ এবং ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের ২৫ শতাংশ লেনদেন কমেছে।