৮ এপ্রিল সাংবাদিকদের সমাবেশ

0
65
jarnalist

jarnalist৮ম ওয়েজ বোর্ডের ৫ দফা সংশোধনী ও সাংবাদিক ছাঁটাই বন্ধের প্রতিবাদে আগামি ৮ এপ্রিল ঢাকায় সমাবেশের ডাক দিয়েছে সাংবাদিক-শ্রমিক-কর্মচারী ঐক্য পরিষদের নেতারা।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সাংবাদিক, শ্রমিক ও কর্মচারী ঐক্য পরিষদ আয়োজিত ৮ম ওয়েজ বোর্ডের অসঙ্গতি দূরীকরণ ও গণমাধ্যমে ছাঁটাই বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

সমাবেশের পাশা-পাশি আগামিকাল থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত প্রত্যেকটি মিডিয়া হাউজে মিটিং, সমাবেশ, পোস্টারিং করা হবে, ৮ এপ্রিল ৪ ঘণ্টার কর্মবিরতী করা হবে, ৬ এপ্রিল তার পরবর্তী কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে বলে জানান সাংবাদিক নেতারা।

এ বিক্ষোভ সমাবেশে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী বলেন, মালিকদের খুশি করা এই ওয়েজ বোর্ড সাংবাদিক সমাজ মানে না। অবিলম্বে এ ওয়েজ বোর্ড সংশোধন করে সাংবাদিকদের দাবি মেনে নিন।

তিনি বলেন, আমাদের দাবি না মানা পর্যন্ত আমরা রাজপথ ছাড়বো না। আর ছাঁটাই করা সকল সাংবাদিকদের পুনর্বহাল করতে হবে। এবং বন্ধ সকল গণমাধ্যম খুলে দিতে হবে।

সাংবাদিক-শ্রমিক-কর্মচারী পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক ও বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফউজে) সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন, আমরা প্রতিষ্ঠানের মঙ্গল চাই। কিন্তু প্রতিষ্ঠান আমাদের পেটে লাথি মারবে তা মেনে নেবো না।

৮ম ওয়েজ বোর্ডের মাধ্যমে মালিক পক্ষ ১১ কোটি টাকা লাভবান হবেন আমাদের কিছুই দেবেন না তা হবে না বলেও উল্লেখ করেন এই সাংবাদিক নেতা।

মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন, ওয়েজ বোর্ড নিয়ে জটিলতার দায়ভার তথ্যমন্ত্রীকে নিতে হবে। অবিলম্বে যদি এর কোনো সমাধান না করা হয় তাহলে অচিরেই পদত্যাগ করতে হবে এই মন্ত্রীর।

তিনি পূর্বের ইতিহাস টেনে বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন ওয়েজ বোর্ড নিয়ে চালাকি করতে গিয়ে পদত্যাগ করতে হয়েছিল, আপনারও ঠিক সে অবস্থা হবে যদি আপনি এর সমাধান না করেন।

তিনি বলেন, সংবাদ পত্রকে শিল্প ঘোষণা করা হয়েছে, আমরা তো এই শিল্পের কারিগর আমাদের সাথে আলোচনা ছাড়াই সংবাদপত্রকে শিল্প ঘোষণা করতে পারেন না।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ বলেন, সাংবাদিকদের বেতন কমানোর এই ওয়েজ বোর্ড আমরা মানি না। সাংবাদিকদের ন্যায্যা অধিকার অবশ্যই পূরণ করতে হবে।

তিনি বলেন, প্রত্যেকটি মিডিয়া হাউজকে ওয়েজ বোর্ডের আওতাভুক্ত করেই আমরা আমাদের আন্দোলন বন্ধ করব। এর আগে না।

সমাবেশ সাংবাদিকদের সকল দাবি-দাওয়া মেনে নিয়ে অবিলম্বে কার্যকর ভূমিকা রাখার জন্য তথ্যমন্ত্রনালয়কে আহবান জানানো হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে সাংবাদিকরা প্রত্যেক মিডিয়া হাউজকে সেখানের সাংবাদিকদের নিয়োগপত্র প্রদানের আহবান জানান

এসএস/জেইউ/সাকি