অবরোধ বাড়লো ১২ ঘণ্টা

হরতাল

stricckeনির্বাচনী তফসিল প্রত্যাখ্যান করে ১৮ দলীয় জোটের  ডাকা সারা দেশের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচি আরও ১২ ঘণ্টা বাড়িয়েছে ১৮ দল। জোটের অন্যতম প্রধান শরিক বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বুধবার বিকেলে অবরোধের সময় বাড়ানোর এ ঘোষণা দেন।

অবরোধ চলাকালে পুলিশ ও আওয়ামী লীগ কর্মীদের হামলায় জোটের নেতাকর্মী নিহত ও আটক হওয়ার প্রতিবাদে অবরোধ বাড়ানো হয়েছে বলে জানান রিজভী।

রিজভী বলেন, বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলের দেওয়া অবরোধ কর্মসূচি শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক কর্মসূচি। এ কর্মসূচি চলাকালীন ৪৮ ঘণ্টা অবরোধের দ্বিতীয় দিনেও ক্ষমতালিপ্সু আওয়ামী সরকারের গুণ্ডা বাহিনী ও পুলিশ র‌্যাব কর্তৃক বিরোধী নেতাকর্মীদের হত্যা, গ্রেপ্তার, হামলা ও মিথ্যা মামলা দায়ের করা হচ্ছে। এ কারণেই অবরোধ কর্মসূচি আরও ১২ ঘণ্টা বাড়ানো হলো।আ.লীগ নির্বাচনী ইশতেহারে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রত্যাহার প্রসঙ্গে কিছুই উল্লেখ ছিল না, এমন দাবি করে তিনি বলেন, ২০০৪ সালের নির্বাচনের প্রাক্কালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রসঙ্গে কোনো কথাই বলেনি আ.লীগ। তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি বিলুপ্তির যে রায় দেয় আদালত রায়টির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছার হুবহু প্রতিধ্বনি শোনা যায়। এই প্রক্রিয়াটি গুরুতর বিচারিক অসদাচারণ ছিল।

তারা তফসিল ঘোষণা করে জনগণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, একতরফা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে এই নির্বাচন কমিশন। গণতন্ত্রের বদলে দেশে এখন চলছে ইচ্ছাতন্ত্র। এই ইচ্ছাতন্ত্রকে বাস্তবে রূপ দেওয়ার জন্য বর্তমান নির্বাচন কমিশন অত্যন্ত আজ্ঞাবহ ভূমিকা পালন করছে। তারা এখন সরকারের প্রধান ফরমায়েশী প্রতিষ্ঠানে রূপ নিয়েছে।

রাজনৈতিক সমঝোতার আগেই তারা তফসিল ঘোষণা করেছে। তাদের কাছে জনগণ, কোনো রাজনৈতিক দল, বিশিষ্ট নাগরিক সমাজ বিজ্ঞ জন কেউই বিবেচ্য নয়। সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ, শান্তিপূর্ণ, সুষ্ঠু নির্বাচনের তাগিদ আমলে নেয়নি নির্বাচন কমিশন। দেশের এই অরাজক পরিস্থিতির জন্য সরকার ও তার আজ্ঞাবহ এই নির্বাচন কমিশনই দায়ী।

রিজভী দাবি করেন, গত কাল সন্ধ্যা থেকে এখন পর্যন্ত  অবরোধ চলাকালীন সারাদেশে বিএনপিসহ ১৮ দলের ৫ জন নেতাকর্মী নিহত ও আহত হয়েছেন ১২০০ জনের অধিক নেতাকর্মী। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৪৫০ জনের অধিক নেতাকর্মীকে। ৫ হাজারের অধিক নেতাকর্মীকে মামলায় আসামি করা হয়েছে। এছাড়া, ভ্রাম্যমাণ আদালত কর্তৃক ৪ জন নেতাকর্মীকে সাজাদেওয়া করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এমআর/