‘ঢাকার প্রকৃতি ও পরিবেশ বাঁচাও’

0
71
manobbandon

manobbandonবিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাব সম্মুখে এক মানববন্ধন সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে পরিবেশবাদী ফোরাম সিএলএনবি ও জলজলা কৃষিজমি বনভূমি রক্ষা আন্দোলনের যৌথ উদ্যেগে এ মানববন্ধন সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

শাহাজাহান কবীর জহীরের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ঢাকা শহরের ৪৬টি খালের মধ্যে ২৪টি খাল ইতোমধ্যেই বেদখল হয়ে বিলুপ্ত হয়েছে। এ সময় বেদখলকৃত খাল উদ্ধার ও অবশিষ্ট মৃতপ্রায় ২২টি খাল সংস্কারের দাবি জানান তারা। ঢাকা শহরের চারপাশে বুড়িগঙ্গা, বালু, শীতলক্ষা, ধলেশ্বরী নদী শিল্পদূষণ ও অবৈধ দখলদারদের কবলে পড়ে এখন মৃতপ্রায়।

বৃহত্তর ঢাকার পরিবেশ, কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য জলাভূমি, খাল, নদী, বনভূমিকে অবৈধ দখল ও শিল্প দূষণ থেকে বাঁচাতে হবে।  ধলেশ্বরী নদীর সাথে তুরাগ-শীতলক্ষা নদী সংযোগস্থল সংস্কার, বালু-তুরাগ নদী সংযোগ ডুমনী-বোয়ালিয়া খাল সংস্কার, বুড়িগঙ্গা-তুরাগ নদী সংযোগ খাল, নবাবগঞ্জ- হাজারীবাগ হাটকের খাল দখলমুক্ত ও সংস্কার, মিরপুর-রূপনগর খাল দখলমুক্ত ও সংস্কার করে ঢাকার পানি ও পরিবেশের উন্নয়ন হবে। অতি সম্প্রতি ভারতে গজলডোবা বাঁধের কারণে দেশের তিস্তা নদী এখন মৃতপ্রায়। যে কারণে দেশের উত্তরাঞ্চলে এখন পানির জন্য হাহাকার করছে এবং কৃষিসম্পদ এখন প্রায় ধ্বংসের উপক্রম।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সিএলএনবি’র চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ, ভূমিহীন সমিতির নেতা সুবল সরকার, গরিব মুক্তি আন্দোলনের শামসুজ্জামান মিলন, তিস্তা নদী রক্ষা সংগ্রাম কমিটির ফরিদুর ইসলাম ফরিদ, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন বাপা’র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শরীফ জামিল, সাম্যবাদী দলের নেতা শামসুদ্দীন, সংযুক্ত শ্রমিক ফেডারেশন নেতা আশরাফ সরকার, মানবাধিকারকর্মী অ্যাডভোকেট শেখ মো: জাকির হোসেন, সংযুক্ত মহিলা পরিষদ সভাপতি জান্নাত ফাতেমা, জাগো নারী ফাউন্ডেশন সভাপতি নূর-উন-নাহার মেরী, ওয়ার্কার্স পার্টি নেতা হায়দার আলী, জাগো বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মো. বাহারানে সুলতান বাহার প্রমুখ।