পুঁজিবাজারের গভীরতা বাড়ানোর উদ্যোগ সরকারের

0
57
BSEC_DSE

BSEC_DSEপুঁজিবাজারের গভীরতা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এই লক্ষ্যে পুঁজিবাজারে অন্তর্ভুক্ত হতে যাচ্ছে ডেরিভেটিভস ও কমোডিটি মার্কেট। এই কার্যক্রম সফল করতে কমিশনের ৫১২তম সভায় পৃথক তিনটি কমিটিও গঠন করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা। কমিটি তিনটিকে  দায়িত্ব পালনের জন্য চলতি মাসের ১৯ তারিখে চিঠি ইস্যু করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, পুঁজিবাজারের গভীরতা বাড়ানোর লক্ষ্যে সরকার পুঁজিবাজারে অন্তর্ভুক্ত করতে যাচ্ছে ডেরিভেটিভস ও কমোডিটি তথা পণ্য লেনদেন সুবিধা। এছাড়াও কাজে দ্রুত গতির জন্য ক্লিয়ারিং কর্পোরেশন গঠন করার উদ্যোগ নিয়েছে বিএসইসি। এ জন্য তিনটি কমিটিতে সংস্থাটির তিনজন নির্বাহী পরিচালককে আহ্বায়ক করা হয়েছে। এছাড়াও কমিটিতে একজন সদস্য ও একজন করে সদস্য সচিব রাখা হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিএসইসির এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা অর্থসূচককে বলেন, এই কার্যক্রম সফল করার লক্ষ্যে বিএসইসির চেয়ারম্যান আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়েছে। এখন যতদ্রুত সম্ভব ডেরিভেটিভস ও কমোডিটি মার্কেট পুঁজিবাজারে অর্ন্তভুক্ত করার জন্য  কাজ করবো।

ডেরিভেটিভস মার্কেট সংক্রান্ত কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ফরহাদ আহমেদকে। আর সদস্য করা হয়েছে পরিচালক মোহাম্মদ রেজাউল করিমকে। এছাড়াও সদস্য সচিব হিসেবে রয়েছেন পরিচালক ফারহানা ফারুকী।

অন্যদিকে, ক্লিয়ারিং কর্পোরেশনের আহ্বায়ক করা হয়েছে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক মো. সাইফুর রহমানকে। এ কমিটির সদস্য হিসেবে রয়েছেন নির্বাহী পরিচালক মো. মাহবুবুল আলম ও সদস্য সচিব পরিচালক প্রদীপ কুমার বসাক।

এদিকে, কমোডিটি মার্কেট সংক্রান্ত কমিটিতে আহ্বায়ক করা হয়েছে নির্বাহী পরিচালক মো. মাহবুবুল আলমকে। এ কমিটির সদস্য হিসেবে রয়েছেন পরিচালক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। এছাড়াও সদস্য সচিব হলেন পরিচালক মনসুর রহমান।

উল্লেখ্য, বর্তমানে বিশ্বের উন্নত পুঁজিবাজারগুলোতে ডেরিভেটিভ মার্কেট চালু রয়েছে। এমনকি আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত ও পাকিস্তানেও ডেরিভেটিভ  চালু আছে।

অর্থসূচক/জিইউ/এমআরবি/