বখাটের হুমকিতে গলায় ফাঁস স্কুলছাত্রীর

প্রতিনিধি

0
78
চাঁদনী

খুলনায় বখাটের হুমকি ও উত্যক্ত সহ্য করতে না পেরে শামসুন নাহার চাঁদনী (১২) নামে এক স্কুলছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। চাঁদনী খুলনার সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী। সে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়।

শুক্রবার রাতে নগরীর হরিণটানা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। চাঁদনী সেনা বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট রবিউল ইসলামের মেয়ে।

চাঁদনী

এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবার সূত্র জানায়, চাঁদনীর পিতা সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট রবিউল ইসলাম হরিণটানা প্রাইমারি স্কুলের সামনে জায়গা কিনে বাড়ি তৈরি করে কয়েক বছর ধরে পরিবারসহ বসবাস করছেন।

তারা জানান, প্রতিবেশী সেনিটারি মিস্ত্রি শাহ আলমের ছেলে শুভ এলাকায় বখাটে হিসেবে পরিচিত। সে পাইপ মিস্ত্রি হিসাবে কাজ করে। শুভ চাঁদনীকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে দলবলসহ উত্যক্ত করত। এমনকি শুভ চাঁদনীদের বাসায় গিয়ে তার পিতা-মাতার সামনেই উত্যক্ত করার চেষ্টা করত।

জানা যায়, সর্বশেষ গত শুক্রবার বিকেলে বখাটে শুভ তার ৭/৮জন সহযোগীকে নিয়ে চাঁদনীদের বাসায় যায়। এ সময় চাঁদনীর বাবা রবিউলের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয় এবং বখাটে শুভ তাকে মারপিট করে। এক পর্যায়ে চাঁদনিকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়ে চলে যায়। রাতে শুভ দলবলসহ মাকে নিয়ে আবারও চাঁদনীদের বাসায় গিয়ে হুমকি দিয়ে ঘরের দরজা খুলে দিতে বলে। তখন চাঁদনীর বাসার কেউ দরজা না খুললে শুভ হুমকি দিয়ে বলে এর পরিণাম ভালো হবে না। এ ঘটনার পর চাঁদনী ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে পুলিশ নিহত চাঁদনীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় শনিবার দুপুর ২টা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি।

চাঁদনীর পরিবারের আহাজারি

নিহতের বাবা সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট রবিউল ইসলাম বলেন, শুভ নামের ওই বখাটে ছেলে চাঁদনীকে উত্যক্ত করত। এই ঘটনা জানার পর গত শনিবার আমি শুভর মা-বাবাকে জানিয়ে তা বন্ধ করার অনুরোধ জানাই। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শুক্রবার শুভ ও শুভর মা আমাদের বাড়িতে এসে আমাকে অপমান করে এবং জানায় তোমার মেয়ে আমার ছেলেকে ফোন করে। তোমার মেয়েকে যদি এখন তুলে নিয়ে যাই তাহলে কে ঠেকাবে? আর অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

তিনি জানান, চাঁদনী এসব কথা শুনে বাবার অপমান সহ্য করতে না পেরে রাতে ওর মায়ের শাড়ি আড়ার সঙ্গে পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

এ ব্যাপারে লবণচরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম বলেন, চাঁদনীর মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

উত্যক্ত ও হুমকির বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলে ওসি জানান।

এদিকে, এ ব্যাপারে অভিযুক্ত পরিবারের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তারা আপাতত গা ঢাকা দিয়েছে বলে জানা গেছে।

অর্থসূচক/শিউলী/জেডআর