দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াই সন্ধ্যায়

0
64

PAKISTAN-VS-INDIAটি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় পর্বের প্রথম খেলায় মুখোমুখি হচ্ছে দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান। আর এ দু’দলের খেলা মানেই বাড়তি উত্তেজনা উপমহাদেশের ক্রিকেট প্রেমীদের জন্য। টি-টোয়েন্টি ম্যাচ কিংবা প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ  ম্যাচের অতীত সকল রেকর্ড ভারতের পক্ষে থাকলেও সাম্প্রতিক সময়ের ফর্মে অনেক এগিয়ে পাকিস্তান। তাই দুই বারের সাবেক চ্যাম্পিয়ন এ দু’দলের কাউকেই ছোট করে দেখার সুযোগ নেই আজকের ম্যাচে।

এর আগে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দু’দলের পাঁচ বারের দেখায় তিনবার জিতেছে ভারত। আর পাকিস্তান মাত্র একবার। এছাড়া ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কোন ম্যাচেই ভারতের কাছে জয় পায়নি পাকিস্তান। তবে এবার জয় পাবেই বলে আত্মবিশ্বাস পাকিস্তান শিবিরে।

এদিকে মাঠে নামার আগে বৃহস্পতিবার মিরপুরে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছেন ধোনি ও হাফিজরা। একই ভেন্যুতে পাশাপাশি অনুশীলন করেছেন পাকিস্তান ও ভারতের ক্রিকেটাররা।

তবে মূল লড়াইয়ের আগে তৃপ্তির হাসি হাসতে পারেন ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি! এই ফরম্যাটে এর আগে বিশ্বকাপের আসরে ৩ বার সাক্ষাৎ হয়েছে ২ দলের। তাতে ২ বারই হেসেছেন ‘মিস্টার কুল’ খ্যাত ধোনি। আর একবার (টাই) ম্যাচের লড়াই সমানে সমান ছিল।

এ বছর টোয়েন্টি২০তে ভারত ও পাকিস্তান মুখোমুখি না হলেও এশিয়া কাপে খেলেছে তারা। তাতে সুবিধা করতে পারেনি ধোনিবিহীন ভারত। ধোনি না থাকায় নেতৃত্ব পেয়েছিলেন আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি। বিরাটকে হতাশ করে পাকিস্তানকে জয় এনে দিয়েছিলেন অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি।

যাই হোক, অতীতের রেকর্ডের চেয়ে গত ১৫ দিনের পারফর্মে ভারতের চেয়ে এগিয়ে পাকিস্তান। কারণ এশিয়া কাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে জয়ের পাশাপাশি প্রস্তুতি ম্যাচেও ভালো করেছেন হাফিজরা। ২টি প্রস্তুতি ম্যাচের ১টিতে জিতেছে পাকিস্তান। কিন্তু ভারত একটিতে জয় আর হেরেছে বাকিটিতে।

ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচে পরিসংখ্যান কিংবা অতীতের সুখস্মৃতি বাইরে রাখাই ভালো। ২ দলের লড়াইয়ের আগে এ সব শুধুই আলোচনার খোরাক যোগাবে এই যা। কিন্তু উদ্বোধনী ম্যাচে ভারত-পাকিস্তানের লড়াই দর্শকরা হেসে-কেঁদে উপভোগ করবেন, এটা নিশ্চিত!

ভারতের সম্ভাব্য দল : মহেন্দ্র সিং ধোনি (অধিনায়ক), শেখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, যুবরাজ সিং, সুরেশ রায়না, রবিন্দ্র জাদেজা, অমিত মিশ্র, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ভুবনেশ্বর কুমার, মোহাম্মদ শামি, মহিত শর্মা, বরুন অ্যারন, স্টুয়ার্ট ও আজিঙ্ক্য রাহানে।

পাকিস্তানের সম্ভাব্য দল : মোহাম্মদ হাফিজ (অধিনায়ক), আহমেদ শেহজাদ, শারজিল খান, উমর আকমল, কামরান আকমল, শোয়েব মাকসুদ, শহীদ আফ্রিদি, সাঈদ আজমল, জুলফিকার বাবর, উমর গুল, বিলাওয়াল ভাট্টি, সোহাইল তানভীর, মোহাম্মদ তালহা ও জুনায়েদ খান।

উপমহাদেশে ভারত ও পাকিস্তানের ম্যাচ, ময়দানে যেন যুদ্ধের আমেজ নিয়ে আসে। গোলা-বারুদ-কামান হয়ত থাকে না, তবে লড়াইটা যে ব্যাট ও বলের। সমানে-সমান ক্রিকেটীয় যুদ্ধ বলা যেতেই পারে। সেই পরিচিত মাঠে বসে যারা এই মহারণ দেখবেন তারা নিঃসন্দেহে ভাগ্যবান। কিন্তু টিভি সেটের সামনে বসে যারা দেখবেন তারা কী দুর্ভাগা, না বিষয়টি তেমন নয়। ২ দলের লড়াই ক্রিকেট পাগল ভক্তরা যেখানে বসেই উপভোগ করুন না কেন, ওভারের শেষ বলেও তর্ক, বাকযুদ্ধ ও স্নায়ুচাপে থাকবে সবাই।

এইউ নয়ন/