খালেদা ও তারেকের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন

0
104
khaleda Zia

khaleda Ziaজিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও ছেলে তারেক রহমানসহ নয়জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আগামি ২১ এপ্রিল সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করেছে আদালত।

বুধবার এ মামলা দু’টির চার্জ শুনানি শেষে ঢাকা তৃতীয় ও বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বাসুদেব রায়ের  আদালত এ আদেশ দেয়।

জিয়া আরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচজন ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে।

এর আগে, খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে চার্জ গঠনের শুনানীর সময় বাড়ানোর আবেদন করা হয়। আদালত তার আবেদন নামঞ্জুর করেন। এ সময় আদালত প্রাঙ্গণে ও বাইরে বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা তুমুল হট্টগোল শুরু করে দেন। হট্টগোলের একপর্যায়ে আজই অভিযোগ গঠন বিষয়ে আদেশ দেওয়া হবে জানিয়ে এজলাস ত্যাগ করেন বিচারক।

এরপর বিকেল তিনটার দিকে আবারো এজলাসে বসেন বিচারক বাসুদেব রায়।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোশাররফ হোসেন, আবদুল্লাহ আবু, রিজাউর রহমান, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
অপরদিকে বেগম জিয়ার পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, অ্যাডভোকেট মহসিন মিয়া, অ্যাডভোকেট সানাউল্যাহ মিয়া প্রমুখ।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে বিদেশ থেকে আসা দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করে দুদক। ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়া, তারেক রহমান, কাজী সলিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ও শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামালউদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি।

এ মামলায় খালেদা জিয়া ছাড়া অন্য আসামিরা হচ্ছেন বিএনপি নেতা হারিছ চৌধুরী ও তার তৎকালীন একান্ত সচিব বর্তমানে বিআইডব্লিউটিএ;নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

২০১১ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলাটি দায়ের করা হয়। এ মামলায় গত বছর ১৬ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। মামলাটিতে তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়।

এর আগে বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে বেগম জিয়ার আইনজীবীরা অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় ৪১ বার ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় ১১ বার সময় চেয়ে আবেদন করেছিলেন।

এমআর/এআর