হোলির রঙে রাঙানো পুরান ঢাকা

0
308
ভারতে মধ্য প্রদেশের এক হলি উৎসব; ছবি এনডিটিভি
হলির রঙে রাঙানো; ছবি খালিদুল নয়ন
হলির রঙে রাঙানো; ছবি খালিদুল নয়ন

হিন্দু মুসলমান একাকার হয়ে নেচে গেয়ে পালন করছে হিন্দু ধর্মালম্বীদের অন্যতম হোলি উৎসব। এ দিনটিকে ঘিরে উৎসবে মেতেছে পুরান ঢাকার আবাল বৃদ্ধা বণিতার পাশাপাশি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও সার শরিরে রং মেখে উৎসবে মেতেছে তারা। অপরুপ রুপে সেজেছে মন্দির, দালান কোঠা ও দোকানপাট।

আজ ছুটির দিন হওয়া সত্ত্বেও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দেখা গেছে ভিন্ন আয়োজন। সেখানে হিন্দু তরুন-তরুনিদের পাশাপাশি মুসলিমদেরও উৎসবে দেখা যায়। তারা রং মেখে রঙিন হয়ে বিশ্বকাপ ক্রিকেটকে স্বাগত জানিয়ে থিম সং সহ বিভিন্ন গান, নাচ আর জমজমাট আড্ডায় ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছে। অন্যদিকে চলছে ফটোসেশন। রঙে রঙে মাতোয়ারা হওয়ার পাশাপাশি বিশেষ আনন্দভোজের আয়েজন করা হয়েছে।

অপরদিকে পুরান ঢাকার শাঁখারী বাজার, নয়া বাজার, বাংলাবাজার, ইসলামপুর, সূত্রাপুরসহ পুরো  এলাকাই উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যম্পাসে শিক্ষকর্থীরা বলেন, মুসলমান হয়েও আমরা বন্ধুরা মিলে এ উৎসবে এসেছি। এই উৎসব সবাই দারুনভাবে উপভোগ করছি।

উল্লেখ্য, সনাতন ধর্ম মতে, সত্য যুগে প্রহ্লাদ ও হোলিকাকে নিয়ে এ উৎসবের সৃষ্টি। হোলিকা ছিলেন হিরণ্যকাশ্যপের বোন। মানুষকে পুড়িয়ে ফেলার যাদুকরী ক্ষমতা হোলিকার করায়ত্ত ছিল। রাজা হিরণ্যকাশ্যপ নিজেকে ঈশ্বর বলে দাবি করতেন। কিন্তু তাঁর ছেলে প্রহ্লাদ ছিল বিষ্ণুভক্ত। তাই প্রহ্লাদকে মেরে ফেলার জন্য হিরন্যকাশ্যপ তাকে হোলিকার হাতে তুলে দেন। প্রহ্লাদকে পুড়িয়ে মারতে গিয়ে নিজেই পুড়ে ছাই হয়ে যান হোলিকা। সেদিন থেকেই হোলি উৎসবের শুরু।

এমআই/সাকি