হকার উচ্ছেদ বন্ধ ও হকার নীতিমালা প্রণয়নের দাবি

0
68

Hokarপুনর্বাসন ছাড়া হকার উচ্ছেদ বন্ধ ও হকার নীতিমালা প্রনয়ণসহ ৭ দফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হকার্স ফেডারেশন।তাছাড়া অবৈধভাবে পুলিশিচাঁদা বন্ধের দাবিও জানায় সংগঠনটি।

সোমবার সকালে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউর সংগঠনটির কার্যালয়ে এক আলোচনা সভায় বক্তারা এই দাবি জানায়।

দাবিতে সংগঠনটি গত ৫ মে ২০১৩ হেফাজতের সন্ত্রাসীদের তাণ্ডব ও লাইনম্যান নামধারী চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে পল্টন থানায় করা দুটি মামলায় অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানানো হয়।এছাড়া, পুনর্বাসন ছাড়া হকার উচ্ছেদ বন্ধ করা, হকার নীতিমালা প্রণয়ন, ১৯৯৮ সালে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক হকারদের জন্য বরাদ্দকৃত ৮টি স্থানের দখল বুঝিয়ে দেয়ার দাবিও করে সংগঠনটি।

বিভিন্ন সময়ে ক্রিকেট খেলাসহ রাষ্ট্রীয় নানা অনুষ্ঠানে কারণে উচ্ছেদ থাকাকালীন সময়ে হকারদের বেকার ভাতা প্রদান করা, রাজস্ব গ্রহণ, অবৈধ চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিও জানানো হয়।

বক্তারা বলেন, যখন-তখন হকারদের উচ্ছেদ করা চলবে না।আর এটা করা হলে কঠোর আন্দোলনে নামবেন তারা। তবে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের স্বার্থে সকলকে ফেডারেশনের পরিচয়পত্র সংগ্রহ করার জন্য হকারদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

তারা আরও বলেন, তাদের টাকায় পুলিশের বেতন হয়।তবে চাঁদার নামে সরকারের নির্দেশ না মেনে অবৈধভাবে হকার উচ্ছেদের পায়তারা করেন বলে অভিযোগ করেন তারা। এই অবৈধভাবে টাকা আদায়ের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ করেন তারা।আর এই অপচেষ্টার বিরুদ্ধে সারাদেশের হকারদের আন্দোলনে অংশগ্রহণ করার আহ্বান জানানো হয় সভা থেকে।

টিএন্ডটির উত্তর ফুটপাত হকার্স প্রতিনিধি মোঃ বাবুল মিয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি এম.এ কাশেম। সাধারণ সম্পাদক হারুণ অর রশিদ, এস.এম জহিরুল ইসলাম, আবুল বাসেদ মোল্লা, আজাহারুল ইসলাম, খায়রুল বাশার (মামুন), নুরু মিয়া, শাহীন, মোঃ সিদ্দিক, মোঃ মালেক প্রমুখ।