আরও একটি উদ্বেগের সপ্তাহ শুরু

0
42
dse-logo_update
ডিএসই লোগো

dse-logo_updateদেশের প্রধান স্টক এক্সচেঞ্জ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আরও একটি উদ্বেগের সপ্তাহ শুরু হয়েছে। গতকাল রোববার সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে ডিএসইএক্স বা প্রধান সূচক কমেছে ৪৪ পয়েন্ট। এছাড়া ডিএস৩০ এবং ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচকও কমেছে। তাছাড়া তিন মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন হয়েছে গতকাল। পরপর তিনটি সপ্তাহ পার করেছে ডিএসই সূচক অথবা লেনদেনের কমতি দিয়ে।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বিগত তিন সপ্তাহ ধরেই ডিএসইতে সূচক এবং লেনদেন কমেছে। এর মধ্যে প্রথম সপ্তাহে অর্থাৎ ২৮ ফেব্রুয়ারির সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আগের সপ্তাহের চেয়ে লেনদেন বাড়ে ৩৫ দশমিক ৯২ শতাংশ। আর ডিএস৩০ এবং শরীয়াহ সূচক বা ডিএসইএস সূচক কিছুটা বাড়ে। তবে কমে যায় ডিএসইএক্স বা প্রধান সূচক। এর পরের সপ্তাহে অর্থাৎ ৭ মার্চের সপ্তাহে সূচক ও লেনদেন কমে যায়। ওই সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন কমে ৮ দশমিক ৮৯ শতাংশ। আর শুধু শরীয়াহ সূচক ছাড়া ডিএসইএক্স এবং ডিএস৩০ সূচক কমে যায়। এর পরের ১৪ মার্চের সপ্তাহে সূচক কমে ১১ দশমিক ১৫ শতাংশ। আর লেনদেন কমে ২৫৭ কোটি ৫৩ লাখ ৩৭ হাজার ৪৮৩ টাকা।

বিশ্লেষকদের মতে, তিন সপ্তাহ ধরেই ডিএসইতে তালিকাভুক্ত বেশির ভাগ শেয়ারের দাম কমেছে। সেকারণে বিনিয়োগকারীদের হাতে পুঁজি কমে গেছে। তাই নতুন ভাবে বিনিয়োগ খুব কম হয়েছে ডিএসইতে। যার ফলে লেনদেন ও কম হয়েছে ডিএসইতে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে ডিএসইএক্স সূচকের অবস্থান রয়েছে ৪ হাজার পয়েন্টে। আর শরীয়াহ সূচক ১ হাজার এবং ডিএস৩০ সূচকও ১ হাজার পয়েন্টে অবস্থান করছে। গতকাল ডিএসইতে তিন মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন হয়েছে ২৯২ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

অর্থসূচক/এমআরবি/