‘ভিসা জটিলতা সমাধান না হলে হজযাত্রীদের হয়রানি আরও বাড়বে’

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
38
Hajj Flight4
হজ ফ্লাইট। ফাইল ছবি।

মূলত ভিসা জটিলতার কারণে যাত্রী সংকটে পড়ে এ পর্যন্ত ১৫টি হজ ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। কিন্তু এই জটিলতা দুই একদিনের মধ্যে সমাধান না হলে হজযাত্রীদের হয়রানি আরও বাড়তে পারে বলে মনে করছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

আজ বুধবার সচিবালয়ে হজযাত্রী পরিবহন নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে এসব কথা জানান তিনি।

মন্ত্রী আরও জানান, বাতিল ১৫টি ফ্লাইটের মধ্যে বাংলাদেশ বিমানের ১২টি ও সৌদি এয়ারলাইন্সের ৩টি। হজ ফ্লাইট বাতিলে বিমানের ক্যাপাসিটি লস হয়েছে ৫ হাজার ৩৮০ জন, সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের লস হয়েছে ১ হাজার ২০০ জন।me

menon
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। ফাইল ছবি

বিমানমন্ত্রী বলেন, ফ্লাইট পরিচালনায়  এমন হতে পারে ধারণা করে অতিরিক্ত ফ্লাইটের ব্যবস্থা করে রেখেছে। কিন্তু অতিরিক্ত মোয়াল্লেম ফি, ভিসা জটিলতা আজ কালের মধ্যে সমাধান না হলে জটিলতা আরও বাড়বে।

ই-ভিসার প্রিন্টের ক্ষেত্রে অসুবিধা হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন,  কোন গ্রুপে ১০০ জন থাকলে সেখানে ১৬ জনের ভিসা না হলে পুরো গ্রুপ ক্যান্সেল (ফ্লাইট) হয়ে যায়।

মেনন বলেন, আমরা চাই না কোনো ধরনের জটিল সমস্যা-সংকট সৃষ্টি হোক। কিন্তু এ বছর খুব দুর্ভাগ্যজনকভাবে কতগুলো ঘটনা ঘটে গেছে। ভিসা হয়েছে ৪৬ হাজার ৭৯২ জন হাজীর, গেছেন ২৯ হাজার ৮৩৯ জন। ১৭ হাজার হাজী যেতে পারেননি। এখন জেদ্দায় আমাদের অবশিষ্ট যে হাজী পরিবহন করতে হবে তার সংখ্যা প্রায় ৪৭ হাজার ৭৬১ জন।

২৬ আগস্ট বিমান ও ২৮ আগস্ট সৌদি এয়ালাইন্স সৌদি আরব যাওয়ার শেষ ফ্লাইট পরিচালনা করবে বলেও জানান তিনি।

অর্থসূচক/আজম/ কে এম