চট্টগ্রামে স্বর্ণ চোরাচালান মামলায় কারাগারে আনসার সদস্য

অর্থসূচক ডেস্ক

0
54

চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্বর্ণ চোরাচালানে সহায়তার মামলায় মো. শাহিন নামে এক আনসার সদস্যকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে শাহিন চট্টগ্রামের একটি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করলে মহানগর দায়রা জজ মো. শাহে নূর তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। অভিযুক্ত শাহিন বর্তমান শাহ্‌ আমানত বিমানবন্দরের আনসার ব্যাটেলিয়নে দায়িত্বরত ছিলেন।

ছবি সংগৃহীত

দুর্নীতি দমন কমিশনের পিপি অ্যাডভোকেট কাজী ছানোয়ার আহমেদ লাবলু জানান, ২০১৩ সালের ১ জুলাই চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে দুবাই থেকে আসা এক যাত্রীর লাগেজ তল্লাশি করে স্বর্ণের ২৫টি বার পাওয়া যায়। লাগেজটি বিমানবন্দর পার করে দিতে বিমানবন্দরে দায়িত্বরত সিভিল এভিয়েশন ও কাস্টমস কর্মকর্তারা সহযোগিতা করছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে। এই সময় আনসার সদস্য মো. শাহিন ছাড়া অন্যান্য আনসার সদস্য জড়িত থাকতে পারে এমন অভিযোগ পাওয়া যায়।

আদালতের মামলার খতিয়ান সূত্রে জানা গেছে, স্বর্ণের বার উদ্ধারের ঘটনায় ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর নগরীর পতেঙ্গা থানায় মামলা করেন দুদকের চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক রহমত উল্লাহ। ওই মামলা তদন্ত শেষে চলতি বছরের ২ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক এইচ এম আক্তারুজ্জামান।

অভিযোগপত্রে বিমানবন্দরে দায়িত্বরত কাস্টমসের তৎকালীন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আনিসুর রহমান ও সিভিল এভিয়েশনের কর্মকর্তা মোমেন মোকসেদসহ সাতজনকে আসামি করা হয়। মামলাটি বর্তমানে অভিযোগ গঠনের অপেক্ষায় আছে।

অর্থসূচক/দেবব্রত/কে এম