চট্টগ্রাম বিভাগে পাহাড় ধসের সতর্কতা

অর্থসূচক ডেস্ক

0
85

চলতি সপ্তাহের শুরু থেকেই চট্টগ্রাম বিভাগের বেশিরভাগ এলাকায় ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হচ্ছে।টানা বৃষ্টিতে শহর ও মহাসড়কে জল জমে দেখা দিয়েছে অস্থায়ী বন্য। এছাড়া বিভাগটির পার্বত্য এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের ঘটনাও ঘটেছে।

আজ বুধবার এখনও ওই এলাকায় ভারী বর্ষণ অব্যাহত রয়েছে। এই আবহাওয়ার এক বিশেষ সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, চলমান এই ভারী বর্ষণের কারণে চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ী এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে।

আজ দুপুরে বাংলাদেশ আবহাওয়া্ অধিদপ্তরে প্রকাশিত ওই সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে আজ সকাল ১০ টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী,ঢাকা,খুলনা,বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

এদিকে সকাল ৬ টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত একটি আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আজ বুধবার ঢাকা ও ঢাকার পার্শ্ববর্তী এলাকার আকাশ মেঘলা থেকে অস্থায়ীভাবে মেঘাচ্ছন্ন থাকতে পারে। হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টিপাত হওয়ার পাশপাশি দক্ষিণ/দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘন্টায় ১০-১৫ কি. মি. বেগে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে। দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে।

দেশের উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দর সমূহকে সংকেত নামিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকাল ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত বেশি বৃষ্টি হয়েছে পটুয়াখালীতে। পরিমাণ ৭৮ মিলিমিটার। এ ছাড়া যশোরে ৭৬, ময়মনসিংহে ১৭, চট্টগ্রামে ১৬, সিলেটে ১২, রাজশাহীতে ৪২, রংপুরে ২৭, বরিশালে ৬৪ ও খুলনায় ৩০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে দেশজুড়ে বৃষ্টি হচ্ছে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে।

টি