যুক্তরাষ্ট্রে নতুন ওষুধ রপ্তানির অনুমতি পেল বেক্সিমকো

অর্থসূচক ডেস্ক

0
54
বেক্সিমকো ফার্মা। ফাইল ছবি

বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ওষুধ রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে আরও একটি নতুন ওষূধ রপ্তানির অনুমোদন পেয়েছে।

ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (ইউএস এফডিএ) কর্তৃক মেথোকার্বোমল ট্যাবলেট (৫০০ মি.গ্রা. এবং ৭৫০ মি.গ্রা.) বাজারজাতকরণের অনুমোদন লাভ করেছে কোম্পানিটি। মাসেল রিলাক্সেশন  (মাংসপেশীকে আরাম দেওয়া) এর এই জেনেরিক ওষুধটি অ্যাক্সিয়াম ফার্মা, এলএসসি’র রোবাক্সিন ট্যাবলেট (৫০০ মি.গ্রা. এবং ৭৫০ মি.গ্রা.) এর সমতুল্য।

beximco
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ ও রাসায়নিক খাতের কোম্পানি বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের লোগো।

এটি বেক্সিমকো ফার্মার চতুর্থ ওষুধ; যা যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ২০১৭ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে রপ্তানি শুরুর আশা করছে কোম্পানি। ইন্টারকন্টিনেন্টাল মার্কেটিং সার্ভিসেস (আইএমএস) এর তথ্য অনুসারে যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে ৪টি কোম্পানি মেথোকার্বোমল ট্যবলেট বাজারজাত করছে। এরা হলো ক্যামবার, কোয়ালিটেস্ট, ওয়েস্ট ওয়ার্ড এবং সোলকো।

এ প্রসঙ্গে বেক্সিমকো ফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে চতুর্থ পণ্যের অনুমোদন লাভ সত্যিই আমাদের জন্য আনন্দের। আমি  দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, ইতোমধ্যে অনুমোদিত এবং অনুমোদনের অপেক্ষায় থাকা অন্যান্য ওষুধগুলো বাজারজাতকরণের মাধ্যমে আমরা বিশ্বের সর্ববৃহৎ ওষুধের বাজারে আমাদের উপস্থিতিকে শক্তিশালী করতে পারব।

বেক্সিমকো ফার্মা ২০১৫ সালের জুন মাসে দেশের প্রথম ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানি হিসেবে ইউএস এফডিএ কর্তৃক নিরীক্ষিত ও অনুমোদিত হয়। বর্তমানে কোম্পানিটি ৫০টিরও বেশি দেশে ওষুধ  রপ্তানি করছে। বেক্সিমকো ফার্মা ইউএস এফডিএ, এজিইএস (ইইউ), টিজিএ অষ্ট্রেলিয়া, হেলথ  কানাডা, জিসিসি এবং টিএফডিএসহ বিশ্বের বিভিন্ন নিয়ন্ত্রক সংস্থা কর্তৃক স্বীকৃত।

এসএম