পাসের হার কমেছে মাদ্রাসায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
103
Madrasha Education
মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এবারের আলিম পরীক্ষায় পাস করা পরীক্ষার্থীদের একাংশ।

২০১৭ সালে মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষায় পাসের হার কমেছে। এই বছর ৯৬ হাজার ৮০২ জন শিক্ষার্থী আলিম পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাস করেছে ৭৪ হাজার ৫৬১ জন। ২০১৬ সালে আলিম পরীক্ষায় ৮৯ হাজার ৬০৩  জন পরীক্ষা দিয়ে পাস করেছিল ৭৯ হাজার ২০ জন।

আজ রোববার প্রকাশিত এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। এর আগে সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলাফলের অনুলিপি হস্তান্তর করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। পরে সচিবালয়ে ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী।

Madrasha Education
মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এবারের আলিম পরীক্ষায় পাস করা পরীক্ষার্থীদের একাংশ।

এতে দেখা গেছে, ২০১৭ সালের আলিম পরীক্ষার্থীদের ৭৭ দশমিক ০২ শতাংশ পাস করেছে। গত ২০১৬ সালে এই পরীক্ষায় পাস করেছিল ৮৮ দশমিক ১৯ শতাংশ পরীক্ষার্থী। অর্থাৎ বছরের ব্যবধানে মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ১১ দশমিক ১৭ শতাংশ কমেছে।

পরীক্ষার্থী এবং পাসের হার কমার পাশাপাশি এবারের আলিম পরীক্ষার্থীদের মধ্যে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীও কমেছে। ২০১৬ সালে মাদ্রাসা বোর্ড থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২ হাজার ৪১৪ জন। এবার ওই বোর্ড থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ হাজার ৮১৫ জন। অর্থাৎ বছরের ব্যবধানে মাদ্রাসা বোর্ডে জিপিএ-৫ কমেছে ৫৯৯ জন।

এবার এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার  অংশ নেওয়া পরীক্ষার্থীদের মধ্যে পাস করেছে ৬৮ দশমিক ৯১ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৭ হাজার ৭২৬ জন।

এর মধ্যে ৮টি সাধারণ বোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের মাধ্যমে ১১ লাখ ৬৩ ৩৭০জন শিক্ষার্র্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে মোট পাস করেছে ৮ লাখ ১ হাজার ৭১১ জন। যা গত বছরের চেয়ে ৯৭ হাজার ৪৩৯ জন কমেছে।

আটটি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডর অধীনে এইচএসসি পরীক্ষার পাসের গড় ৬৬ দশমিক ৮৪ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৩ হাজার ২৪২ জন। মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডে পাস করেছে ৭৭ দশমিক ২০ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ হাজার ৮১৫ জন। অন্যদিকে কারিগরি বোর্ডে ৮১ দশমিক ৩৩ শতাংশ পরীক্ষার্থী পাস করেছে; জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ হাজার ৬৬৯ জন।

যেকোনো মোবাইল থেকে এসএসএম করে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল জানা যাবে। এই জন্য HSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৭ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল জানিয়ে দেওয়া হবে।

আলিমের ফল জানতে Alim লিখে স্পেস দিয়ে Mad স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৭ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল পাওয়া যাবে।

এছাড়া এইচএসসি ভোকেশনালের ফল জানতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে Tec লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৭ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল জানিয়ে দেওয়া হবে।

কোনো পরীক্ষার্থী তার ফল পুনঃনিরীক্ষা করতে চাইলে টেলিটক থেকে আগামী ২৪ থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন। এ জন্য RSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

ফিরতি এসএমএসে ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেয়া হবে তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর (পার্সোনাল আইডেন্টিফিকেশন নম্বর-PIN) দেওয়া হবে।

আবেদনে সম্মত থাকলে RSC লিখে স্পেস দিয়ে YES লিখে স্পেস দিয়ে পিন নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২ এপ্রিল থেকে ১৫ মে এইচএসসির তত্ত্বীয় এবং ১৬ থেকে ২৫ মে ব্যবহারিক পরীক্ষা হয়।

অর্থসূচক/আজম/এমই/