‘অ্যাগ্রো-ফুড খাতে দক্ষতার অভাব প্রকট’

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
48
পাকা ধান কেটে বাড়ি ফিরছেন দুই জন কৃষক। ছবি সংগৃহীত

বাংলাদেশে কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে মূল চ্যালেঞ্জ শ্রমবাজারের চাহিদা অনুযায়ী চাকরি প্রার্থীদের দক্ষতার অভাব। আর এ বিষয়টি প্রকট আকার ধারণ করেছে কৃষি ও খাদ্য খাতে (অ্যাগ্রো-ফুড)। এ খাতে মোট ৭৬ শতাংশ দক্ষতার অভাব রয়েছে, আর এর পরেই রয়েছে তৈরি পোশাক খাত।

‘বাংলাদেশের শ্রমবাজারে দক্ষতার অভাব’ শীর্ষক সমীক্ষা প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

আজ রোববার অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে বিআইডিএস কর্তৃক এ প্রতিবেদনটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। এ সময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মহিত প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, বিআইডিএসের মহাপরিচালক কে.এ.এস মুর্শীদ।

উৎপাদিত ফসল ঘরে তুলছে কৃষকেরা
কৃষি ও খাদ্য খাতে মোট ৭৬ শতাংশ দক্ষতার অভাব রয়েছে বলে সমীক্ষা প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

প্রতিবেদন দেখা গেছে, কৃষি ও খাদ্য খাতে বর্তমানে প্রয়োজনের তুলনায় দক্ষতার অভাব রয়েছে ৭৬ শতাংশ। এর মধ্যে দক্ষ কর্মকর্তার অভাব রয়েছে ৭৭ শতাংশ, আধা দক্ষ কর্মকর্তা এবং অদক্ষ শ্রমিকের অভাব রয়েছে ৭৫ শতাংশ করে।

এর পরেই রয়েছে তৈরি পোশাক খাত। বর্তমানে এ খাতে দক্ষ কর্মকর্তার অভাব রয়েছে ১ লাখ ১৯ হাজার ৪৭৯ জন। আধা দক্ষ কর্মকর্তার অভাব রয়েছে ৪৮ হাজার ১৩০ জন এবং অদক্ষ শ্রমিকের অভাব রয়েছে ৮ হাজার ৫৭৭ জন।

বিআইডিএসের এ গবেষণা প্রতিবেদনে মোট ১০টি খাতের দক্ষতার অভাবের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আগামী দেশে দক্ষ জনগোষ্ঠী গঠনে এ ধরনের সমীক্ষা প্রতিবেদন সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। দক্ষতা উন্নয়নের জন্য চলতি বাজেটেই আমরা ৫ লাখ দক্ষ কর্মকর্তা তৈরির প্রকল্প গ্রহণ করেছি। আগামীতে এ সংখ্যা আরো বাড়বে।

অর্থসূচক/আজম/কে এম