‘মধ্যপ্রাচ্যের ১৭ এনজিও বাংলাদেশের জঙ্গিদের অর্থ দেয়’

অর্থসূচক ডেস্ক

0
61

সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর প্রায় ১৭টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান (এনজিও) বাংলাদেশের জঙ্গিদের অর্থ দিচ্ছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)।

প্রতিষ্ঠানগুলো ভারতের জঙ্গিদেরও অর্থ সহায়তা দিচ্ছে বলে যুক্তরাজ্যের মর্নিং স্টার পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে।

বিএফআইইউ এর বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মুসলিম এইড বাংলাদেশ, রাবেতা আল আলম আল ইসলামী, কাতার চ্যারিটেবল সোসাইটি, ইসলামিক রিলিফ এজেন্সি, আল ফুরকান ফাউন্ডেশন, কুয়েত জয়েন্ট রিলিফ কমিটি, ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক রিলিফ অর্গানাইজেশন, হায়াতুল ইগাচ্ছা, রিভাইবাল অব ইসলামিক হেরিটেজ সোসাইটি, তাওহিদ নূর, আল মুনতাদা আল ইসলামী ও বাংলাদশে কৃষি কল্যাণ সমিতির বিরুদ্ধে জঙ্গি অর্থায়নের প্রমাণ পাওয়া গেছে। এই প্রতিষ্ঠানগুলোর বেশিরভাগই সৌদি আরব, কাতার, কুয়েত ও বাহরাইনের।

খবরে বলা হয়েছে, বিএফআইইউ গত জুন মাসে এই বিষয়ে সরকারের একটি উচ্চ পর্যায়ের দলকে অবহিত করলেও সাংবাদিকদের বিষয়টি জানানো হয় গত মঙ্গলবার।

সাংবাদিকদের জানানো হয়, এনজিওগুলোর ওপর কড়াকড়ি নজর রাখা হচ্ছে।

এ বিষয়ে বিএফআইইউ এর মহাব্যবস্থাপক দেবপ্রসাদ দেবনাথ বলেন, বিষয়টি নিয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে এই বিষয়গুলো নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু আলোচনা হয় এবং কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

তিনি বলেন, ওই ১৭টি এনজিও বিরুদ্ধে জঙ্গিদের অর্থ দেওয়ার অনেক প্রমাণই আমরা পেয়েছি। বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রমের ওপর এখন নিবিড় পর্যবেক্ষণ রাখা হচ্ছে।

তিনি জানান, ওই এনজিওগুলো বাংলাদেশ ছাড়াও ভারতের উত্তর-পূর্ব এলাকার ৮ রাজ্যে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অর্থায়ন করে বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। ওই রাজ্যগুলোর কয়েকটির সঙ্গে বাংলাদেশের সীমান্ত রয়েছে।

তিনি জানান, এইসব এনজিওগুলোর ওপর ২০১২ সাল থেকেই নজর রাখ হচ্ছে। গত ৫ বছরে তাদের বিষয়ে বিস্তর তথ্যও সংগ্রহ করা হয়েছে।

টি