শিশুর কান্না বন্ধে পায়ের পাতায় ম্যাসেজ

অর্থসূচক ডেস্ক

0
134

ছোট শিশুরা জন্মের পর দীর্ঘ সময়ের জন্য কথা বলতে পারে না, তখন তাদের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম হয় কান্নাকাটি। সেক্ষেত্রে অনেক সময়ই শিশুটিকে সহজেই শান্ত করা সম্ভব হয় না। আর বেশির ভাগ নতুন বাবা-মার পক্ষে এ কাজটি করা কঠিনই হয়ে পড়ে।

তবে তাদের জন্য সুখবর হচ্ছে, এক গবেষণায় দেখা  গেছে রিফ্লেক্সোলজি’র প্রভাবের কারণে শিশুরা কান্না-কাটি সহজেই বন্ধ করা যায়। রিফ্লেক্সোলজি হচ্ছে মূলত একটি প্রাচীন চীনা ব্যায়াম। এই পদ্ধটিটি অ্যাকুপ্রেসারের মতোই, এটি পায়ের পাতার স্নায়ু কোষকে ম্যাসেজের মাধ্যমে শিশুদের কান্না থামাতে সাহায্য করে। আর চীনে হাজার হাজার বছর ধরে চলে আসা এ পদ্ধতি বাবা-মায়েরা বেশ ভালোই রপ্ত করতে সক্ষম হয়েছেন।

রিফ্লেক্সোলজি এর মূল ধারণা হল যে আমাদের পায়ে নির্দিষ্ট পয়েন্টে ম্যাসেজ করে এর ভালো ফল পাওয়া। ঠিক যেমন মাথার ব্যথা থেকে মুক্ত হতে আমরা মাথার নির্দিষ্ট পয়েন্ট আঙ্গুলের সাহায্যে চাপ দিয়ে ব্যথা দূর করে থাকি। ঠিক একইভাবে রিফ্লেক্সোলজির দ্বারা আমাদের শরীরের বিভিন্ন জায়গার ব্যথা দূর করা সম্ভব।

সেখানে পায়ের আঙ্গুল গুলোতে চাপ দিলে মাথা ও দাঁত, আঙ্গুলের কেন্দ্রে সাইনাস পয়েন্ট (নাকের দুই পাশ ও ভ্রু এর উপরের দুই পাশ), পায়ের পাতার উপরের অংশে বক্ষ, এর একটু নিচে বক্ষ পিঞ্জর, পায়ের পাতার (কেন্দ্রের অংশ) একটু উপরে ঊর্ধ্ব তলপেট, পায়ের পাতার কেন্দ্রে নিম্ন তলপেট, পায়ের পাতার (কেন্দ্রের অংশ) নিচে শ্রোণী চক্র ও গোড়ালির শেষাংশ মাদার আর্থ এরিয়ার কাজ করে থাকে।

এই অনুশীলন শিশুদের এবং প্রাপ্তবয়স্ক উভয়ের জন্য সহায়ক। তবে বলা হয় যে শিশুরা রিফ্লেক্সোলজি ভাল সাড়া দিতে পারে কারণ তারা শারীরিক স্পর্শে অধিক গ্রহণযোগ্য। কাজেই এর মাধ্যমে দ্রুত শিশুর কান্নাও বন্ধ করা যায়। তাই প্রতিদিন রুটিন করে পায়ের ম্যাসেজ করলে উপকার নিশ্চিত।

সূত্র : ইন্সপায়ার ডট কম

অর্থসূচক/টি এম/কে এম