বার্সা ফরোয়ার্ডে খেলবেন না মেসি!

স্পোর্টস ডেস্ক

0
57
messi
বার্সালোনার জার্সিতে লিওনেল মেসি।

২০০১ সালে স্পেনের ফুটবল ক্লাব বার্সালোনার সঙ্গে লিওনেল মেসির পথচলা শুরু হয়। মাত্র ১৩ বছর বয়সে ওই ক্লাবের যুব দলের ফরোয়ার্ডে খেলা শুরু করেন তিনি। ২০০৩-০৪ মৌসুমে বার্সালোনা ‘সি’; ২০০৪-০৫ মৌসুমে বার্সলোনা ‘বি’ দলে খেলেছিলেন মেসি। আর ২০০৪ সালে ফরোয়ার্ড হিসেবে বার্সালোনা মূল দলে তার অভিষেক হয়।

গত ১৩ বছর ধরে বার্সা ফরোয়ার্ডে দেখা গেলেও আগামীতে সেখানে দেখা যাবে না মেসিকে। অর্থাৎ স্প্যানিশ ক্লাবের ফরোয়ার্ডের বর্তমানের দারুণ ত্রয়ী এমএসএনের (মেসি-সুয়ারেজ-নেইমার) গোল উৎসব আর দেখবেন না বার্সা ভক্তরা। সুয়ারেজ-নেইমার সম্পর্কে কিছু জানা না গেলেও মেসিকে ফরোয়ার্ড থেকে সরিয়ে দেওয়া নিয়ে বেশ আলোচনা হচ্ছে। তবে তার পরিবর্তে অন্য কেউ দলে আসছে কি না- তা এখনও জানা যায়নি।

messi
বার্সালোনার জার্সিতে লিওনেল মেসি।

সদ্য সমাপ্ত ২০১৬-১৭ মৌসুমে ৩৭ গোল করে ইউরোপের গোল্ডেন বুট জিতেছেন লিওনেল মেসি। ২০১৪ বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার হয়ে গোল্ডেন বল জিতেছিলেন তিনি। এছাড়া এখন পর্যন্ত ৫ বার ব্যালন ডি’অর জিতেছেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। আর গত ১৩ বছরে বার্সাকে এনে দিয়েছেন বেশ কয়েকটি শিরোপা।

এতো কিছুর পরও বার্সায় নিজের অবস্থান থেকে সরতে হচ্ছে লিওনেল মেসিকে। এমন সংবাদে বার্সা ও মেসি ভক্তদের মন ভাঙ্গার কোনো কারণ নেই। কারণ ফরোয়ার্ড থেকে সরানো হলেও ক্লাব বার্সালোনায় থাকছেন তিনি। কিছুদিন আগে বার্সার সঙ্গে নতুন করে ৪ বছরের চুক্তি করেছেন এই ফুটবল জাদুগর।

চুক্তির পরও বার্সা ফরোয়ার্ডে মেসির থাকা বা না থাকা নিয়ে কেন আলোচনা হচ্ছে? আসলে বার্সালোনার খেলার ফরম্যাট পরিবর্তন করতে চান দলটির নতুন কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে। সে কারণেই ফরোয়ার্ড থেকে সরিয়ে মেসিকে মিডফিল্ডে খেলানোর চিন্তা করছেন তিনি। মিডফিল্ডের মূল ভূমিকায় মেসি থাকলে- তা দলের জন্য বেশ উপকারী হবে বলেও মন্তব্য করেছেন ভালভার্দে।

নতুন মৌসুমের শুরুতেই বার্সালোনা থেকে বিদায় নিয়েছেন এনরিকে। এরপর কাতালান ক্লাবটির দায়িত্ব নিয়েছেন ভালভার্দে। বার্সাকে ৩-৪-৩ ফরমেশনেই খেলাতে চান নতুন কোচ। মূলত প্লে-মেকার হিসেবেই মেসিকে দেখতে চান তিনি। কোচের এমন চিন্তাকে গুঞ্জন বলা যাবে না। ইতোমধ্যে জনসম্মুখে এই কথা জানিয়েছেন বার্সার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য জেরার্ড পিকে। অনেকটা জোর দিয়েই সংবাদমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন বার্সার সেন্টার ব্যাক।

বার্সার স্পন্সরদের এক অনুষ্ঠানে গিয়ে পিকে বলেন, আমাদের বয়স বাড়ছে; শারীরিক ক্ষমতাও কমছে। এটা সব খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রেই হয়। কেউ কেউ এটা বেশি অনুভব করে, কেউ কম। কিন্তু আমরা সবাই এটার সঙ্গে মানিয়ে নিচ্ছি, খেলার ধরনে পরিবর্তন আনছি।

প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের কাছে ৪-০ গোলের হারের পর বার্সালোনার অতিপরিচিত ৪-৩-৩ ফরমেশন থেকে ৩-৪-৩ ফরমেশনে সরে গিয়েছিলেন কোচ লুইস এনরিকে। মেসিকে অ্যাটাকিং মিডফিল্ডে নামিয়ে ডান উইংয়ে রাফিনহাকে খেলানো হয়েছিল। ন্যু ক্যাম্পে পিএসজির সঙ্গে ওই জুয়া দারুণ কাজে লেগেছিল। মাঝমাঠে মেসিকে নিয়ে ব্যস্ত পিএসজি রক্ষণ, আর সে সুযোগে উইংয়ে নেইমার এবং সামনে থাকা সুয়ারেজ ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছেন সেদিন। ৬-১ গোলের অবিস্মরণীয় এক জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে গিয়েছিল বার্সালোনা।

অর্থসূচক/এমই/