জবির ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক বহিষ্কার

0
62
jogannath

jogannathজগন্নাথ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সৈয়দ আলমের গায়ে অস্ত্র ঠেকানোর ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদককে সাময়িক বহিষ্কার করেছে প্রশাসন। একইসঙ্গে তার বিরুদ্ধে মামলা করারও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন-শৃঙ্খলা কমিটির এক জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বহিষ্কৃতদের মধ্যে রয়েছেন- জবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ছাত্র শামীম আহমেদ ও অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র এস এম সিরাজুল ইসলাম।

পরিসংখ্যান বিভাগের সাবেক ছাত্র শামীম মোল্লাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।
বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অশোক কুমার সাহা বাদী হয়ে শনিবার সিরাজুল ও তার দুই সহযোগী শামীম মোল্লা, শামীম রেজাসহ ছাত্রলীগের অজ্ঞাত আরও ৭-৮ নেতাকর্মীকে আসামি করে কোতোয়ালি থানায় মামলাও দায়ের করেছেন।

শনিবার জবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্ততে জানানো হয়, গত ১৩ মার্চ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল রসায়ন বিভাগের চেয়ারম্যানের কক্ষে প্রবেশ করে টেন্ডারকৃত মালামাল সরবরাহ না করেই কাজ সমাপ্তির প্রত্যয়নপত্র দাবি করেন। প্রত্যয়নপত্র না দেওয়ায় তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়। এ সময় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আলমের মাথায়, সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমেদ বুকে ও শামীম মোল্লা পেছন দিক থেকে পিস্তল ঠেকায়।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার অধ্যাপক সৈয়দ আলমকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৫ লাখ টাকার কাজের প্রত্যয়নপত্র দাবি করেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম রেজা ও শামীম মোল্লা।