বিশ্ববাজারে খাদ্যের দাম ২ বছরে সর্বোচ্চ

অর্থসূচক ডেস্ক

0
80
এফএও

বিশ্ববাজারে খাদ্যের দাম বেড়েছে। জুনে ১.৪ শতাংশ দাম বেড়ে খাদ্যের গড় সূচক পৌঁছেছে ১৭৫.২ পয়েন্টে।। যা গত দুই বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। জাতিসংঘের অঙ্গ সংস্থা এফএও এর প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

খাদ্যের মধ্যে দুগ্ধজাতীয় পণ্য মাখনের রেকর্ড দাম, মাংসের চড়া বাজার ও বৈরী আবহাওয়ায় গমের উৎপাদন শঙ্কা বৈশ্বিক খাবারের দামকে প্রতিনিধিত্ব করেছে।

এফএও

ব্লুমবার্গ মার্কেটের খবরে বলা হচ্ছে, দুগ্ধবাজারে সরবরাহ কম হওয়ায় মাখন ও পনিরের দাম বেড়েছে বেশি। অন্যদিকে গত কয়েকমাসে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে বৈরী আবহাওয়া গমের দাম বৃদ্ধিতে ভুমিকা রেখেছে।

চাহিদা বৃদ্ধি ও মাংসের সরবরাহ কম থাকায় কিছু কিছু দেশে মাংসের দাম বেড়েছে। পোল্ট্রি বাজারে বার্ড-ফ্লু’র প্রকোপও এ বাজারে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।

গত বৃহস্পতিবার এফএও এ প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সংস্থাটির এক ঊর্ধ্বতন অর্থনীতিবিদ জানান, বছরের এ মাসে সাধারণত গমের দাম বেড়ে যায়। মাংসের দামও চড়া থাকে।

খবরে বলা হচ্ছে, ২০১৬ সালের প্রথম দিকে খাদ্যের দাম ৭ বছরে সর্বনিম্ন পর্যায়ে নামে। সেখান থেকে এ মাস পর্যন্ত ১৭ শতাংশ বেড়েছে।

খাবারের দাম:

১. মাখনের দাম বেড়েছে ১৪ শতাংশ; যা রেকর্ড

২. মাংসের দাম বেড়েছে ১.৮ শতাংশ; যা ৬ মাসে সর্বোচ্চ

৩. খাদ্যশস্যের দাম বেড়েছে ৪.২ শতাংশ; যা এক বছরে সর্বোচ্চ

এদিকে, এক আলাদা প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বৈরী আবহাওয়ার কারণে এ বছর খাদ্য উৎপাদনে আগের পূর্বাভাস থেকে সরে এসেছে এফএও। সংস্থাটি পূর্বাভাস দশমিক ০৪ শতাংশ কমিয়েছে। ২০১৭-১৮ বছরে গম উৎপাদনের পূর্বাভাস ধরা হয়েছে ৭৩৯.৯ মিলিয়ন টন; যা এর আগের বছর থেকে ২০ মিলিয়ন টন কম।

শাহীন