দেখা হল তাদের

অর্থসূচক ডেস্ক

0
62

অবশেষে মুখোমুখি দেখা হলো যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের। আজ শুক্রবার জার্মানির হামবুর্গে অনুষ্ঠেয় জি-২০ এর সম্মেলনের এক পর্যায়ে এই দুই নেতা মুখোমুখি হন।

এই সময় তারা পরস্পরে কর্মদনও করেন। শুধু তাই নয় দুইজন এই সময় পরস্পর কুশলও বিনিময় করেন।

তবে এই দুই নেতার বহুল কাঙ্খিত বৈঠকটি আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যার দিকে হওয়ার কথা রয়েছে।

ওই বৈঠকে ঠিক কী কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে তা কোনো পক্ষই স্পষ্ট করেনি। ট্রাম্পের নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেনারেল ম্যাকমাস্টারের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, তাদের বৈঠকের কোনো বিশেষ এজেন্ডা নেই, দুই নেতা যেকোনো বিষয়েই কথা বলতে পারেন।

এদিকে এই দুই নেতার বৈঠক নিয়ে উদ্বিগ্ন হোয়াইট হাউস।  হোয়াইট হাউজ বলেছে, জি-২০ বৈঠক নিয়ে তারা এমনিতেই উদ্বিগ্ন। জার্মানির চ্যাঞ্চেলর মার্কেল ও ইউরোপীয় অন্য নেতারা ট্রাম্পের বাণিজ্যনীতি ও প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসা নিয়ে বিরক্ত। কিন্তু হোয়াইট হাউস সবচেয়ে বেশি উদ্বিগ্ন পুতিনের সঙ্গে ট্রাম্পের বৈঠক নিয়ে।

গত নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে অব্যাহত তদন্তের কারণে এমনিতেই ট্রাম্পের মাথার ওপর কালো মেঘ জমে আছে। এখন পুতিনের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্প যদি প্রতিশ্রুতি দিয়ে বসেন ইউক্রেনে হামলার পর মস্কোর ওপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়, তা তিনি তুলে নেবেন, তাহলে রাশিয়ার সঙ্গে তার আঁতাত নিয়ে সন্দেহ আরও বাড়বে।

নির্বাচনী প্রচারণার সময় তিনি একাধিকবার বলেছেন, এই দুই দেশ একযোগে যদি কাজ করতে সক্ষম হয়, তাহলে আইএস-কে নিশ্চিহ্ন করা সহজ হবে। কিন্তু রাশিয়ার ব্যাপারে তার নিজ দলের ভেতরেই আপত্তি রয়েছে। গত মাসে রিপাবলিকান-নিয়ন্ত্রিত সিনেট ৯৮-২ ভোটে রাশিয়ার বিরুদ্ধে চলতি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্টকে হুঁশিয়ারি জানিয়ে এক প্রস্তাব পাস করেছে।

রাশিয়া ও ট্রাম্পকে নিয়ে সবচেয়ে ক্ষিপ্ত প্রতিপক্ষ ডেমোক্র্যাটরা। এই বৈঠকে ট্রাম্প যদি পুতিনকে বিন্দুমাত্র ছাড় দেন, তারা যে ঝাঁপিয়ে পড়বেন, এতে কোনো সন্দেহ নেই।

টি