ঘুষ: সহকারী কর কমিশনারের ৭ বছর কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
141
court
আদালত-প্রতীকী ছবি

করদাতা থেকে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সহকারী কর কমিশনার কাজী আশিকুর রহমানকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একইসঙ্গে তাকে ১২ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার ঢাকার ৭ নম্বর বিশেষ জজ মুন্সী রফিউল আলম এই রায় দেন। ২০১২ সালে করদাতার কাছ থেকে ঘুষের অর্থ নেওয়ার সময় কাজী আশিকুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছিল দুনীর্তি দমন কমিশন (দুদক)।

court
আদালত-প্রতীকী ছবি

আজ মঙ্গলবার আদলাতের রায় ঘোষণার দুদকের আইনজীবী আসাদুজ্জামান রানা বলেন, ২০১২ সালে কাজী আশিকুর রহমান কর অঞ্চল-৫ এর ১০৪ নম্বর সার্কেলে সহকারী কর কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ওই বছরের ২০ সেপ্টেম্বর শেখ মিজানুর রহমান নামের করদাতা থেকে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ নেওয়ার সময় তাকে গ্রেপ্তার করেন দুদকের সহকারী পরিচালক ফজলুল হকের নেতৃত্বে একটি দল।

দুদকের এই আইনজীবী আরও জানান, কাজী আশিকুর রহমানের বিরুদ্ধে পল্টন থানায় মামলা দায়ের করা হয়। ২০১৩ সালের ২৬ আগস্ট আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের সহকারী পরিচালক অজয় কুমার সাহা।

এই মামলায় বিভিন্ন সময়ে ৮ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন। বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আজ মঙ্গলবার আসামির উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করে আদালত।

রায়ে কাজী আশিকুর রহমানকে দুদকের দুই ধারায় ৭ বছরের কারাদণ্ড ও ১২ হাজার টাকার অর্থদণ্ড দেওয়া হয়। এর মধ্যে একটি ধারায় দুই বছরের কারাদণ্ড ও দুই হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের জেল প্রদান করা হয়। অপর একটি ধারায় ৫ বছরের কারাদণ্ড ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

অর্থসূচক/রহমত/এমই/