গাজীপুরে কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০

অর্থসূচক ডেস্ক

0
60
gazipur_boiler_blast-1
বয়লার বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত ভবন

গাজীপুরে পোশাক কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০ জনে দাঁড়িয়েছে। গতকাল সোমবার রাত পর্যন্ত ৯ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আজ মঙ্গলবার সকালে উদ্ধার অভিযান শুরুর পর আরেকজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

কাশিমপুরের নয়াপাড়ায় ‘মাল্টি ফ্যাবস লিমিটেড’ নামের পোশাক কারখানায় গতকাল সোমবার সন্ধ্যার দিকে ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে আহত অর্ধশতাধিক শ্রমিককে ঢাকা মেডিকেলসহ বিভিন্ন হাসপাতলে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

gazipur_boiler_blast-1
বয়লার বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত ভবন

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. আখতারুজ্জামান জানান, সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মাল্টি ফ্যাবস লিমিটেডের কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণে খরব পাওয়া যায়। জয়দেবপুর, কালিয়াকৈর ও টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা রাত ৮টার দিকে উদ্ধার কাজ শুরু করে। রাত সাড়ে ১১টার মধ্যে ঘটনাস্থল থেকে ৬টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

অন্যদিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. বাচ্চু মিয়া জানান, গাজীপুরে বয়লার বিস্ফোরণের পর গতকাল রাত সাড়ে ৯টার দিকে সালমান ও কামরুল নামে দুইজনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর রাতের বিভিন্ন সময়ে আহতদের হাসপাতালে আনা হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রথমে সালমানের মৃত্যু হয়।

জয়দেবপুর থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম জানান, গাজীপুরের কোনাবাড়ির একটি ক্লিনিক ও তাজউদ্দীন মেডিকেলে আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের ওয়্যারহাউস ইন্সপেক্টর শাহিন মিয়া জানান, গাজীপুরে বয়লার বিস্ফোরণ হওয়া কারখানায় মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে উদ্ধারকাজ শুরু হয়। সকাল সোয়া ৮টার দিকে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরে একটি ৪তলা ভবনে মাল্টি ফ্যাবস লিমিটেডের কারখানা ছিল। সেখানে বয়লার বিস্ফোরণে ওই ভবনের দোতলার কিছু অংশ খসে পড়েছে। কারখানার লোকজন ও এলাকাবাসীর সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন গাজীপুরের জেলা প্রশাসক দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির। তিনি বলেন, ঘটনা তদন্তে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. রায়হানুল ইসলামকে প্রধান করে ৫ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত কার্যদিবসের মধ্যে তারা প্রতিবেদন জমা দেবেন।

মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির জানান, নিহতদের প্রতি পরিবারকে মরদেহ দাফনের জন্য ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। এবং শ্রম মন্ত্রণালয় থেকে আহতদের চিকিৎসার খরচ দেওয়া হবে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদর দপ্তরের স্টেশন অফিসার মো. আতাউর রহমান জানান, ঘটনা তদন্তে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত কর্মদিবসে তাদের প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

অর্থসূচক/এমই/