বিমান কি তাহলে পাইলট নিজেই ছিনতাই করেছে?

0
70

jet 1নিখোঁজ বিমান অনুসন্ধানের দ্বিতীয় সপ্তাহে মালয়েশিয়ান উদ্ধারকর্মীরা ধারণা করছেন, আকাশে বিমানটি ৪ ঘণ্টা উড়ার পর কোনো দক্ষ পাইলট বিমানটিকে ছিনতাই করেছে। এরপর রাডারের সাথে যোগাযোগের সমস্ত পথ বন্ধ করে এর গতিপথ ভিন্ন দিকে নিয়েছে। এদিকে দক্ষিণ চিন সাগর, মালাক্কা, আন্দামানের পর ভারত সাগর ও বঙ্গোপসাগরের চেন্নাই উপকূলে নতুন করে  মোড় নিয়েছে অনুসন্ধান। শনিবার ফক্স নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

উদ্ধারকর্মীদের একজন কর্মকর্তা ফক্সনিউজকে জানিয়েছেন, কোনো ধারণাকে এখনও বাস্তবে রুপ দেওয়া সম্ভব হয়নি। এমনকি বিমানটি শেষ কোন স্থান থেকে ছিনতাই হতে পারে  সেই বিষয়ে নির্দিষ্ট করে বলা এখন আর সম্ভব হচ্ছে না। তবে তিনি মনে করেন, ছিনতাইয়ের পর বিমানটি হজম করা অনেক জটিল। এরও একটা শেষ আছে বলে জানান তিনি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত শনিবার কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিংয়ের পথে বিমানটি  উড়ার পর এর সাথে ৪ ঘণ্টা ধরে যোগাযোগ ছিল মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষের। তাদের ভাষ্যে রাডার বলছে, বিমানটি ছিনতাইয়ের ঘটনা যদি সত্যি হয় তবে এটি আবার মালয়েশিয়াতে ফিরে আসবে। আর সে অনুযায়ী বিমানটি মালয়েশিয়ার পেনিনসুলার পশ্চিম এলাকায় এটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

এর আর আগে মালয়েশিয়ার একজন কর্মকর্তা জানান, বিমানটির খোঁজ এখন ভারত সাগরে । তিনি বলেন, ওই অঞ্চলে বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি ।

বিমানটি চীনের উদ্দেশ্য শনিবার স্থানীয় সময় ২টা ৪০ মিনিটে কুয়ালালামপুর থেকে ছেড়ে যায়। কিন্ত ১০টা ৩০ মিনিটে এটি বেইজিং-এ পৌঁছানোর কথা থাকলেও এটি পৌঁছায়নি। ভিয়েতনামী সরকারের ওয়েবসাইটে জানানো হয়, দক্ষিণ ভিয়েতনামের ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় বিমানটির রাডার বন্ধ হয়ে গিয়েছিল।

মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে অভিযান চালাচ্ছে তারা। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিধ্বস্ত বিমানের কোন ‘চিহ্ন’ খুঁজে পাওয়া যায়নি।  ৫ জন শিশুসহ ২২৭ জন যাত্রী, এবং ১২ জন ক্রু নিয়ে বিমানটি যাত্রা শুরু করেছিল।

এস রহমান/