৮১ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে

0
32
Upazila_Election

Upazila_Electionশনিবার সকাল থেকে দেশের ৮১টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে। তৃতীয় ধাপে সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

তফসিল অনুযায়ী ৮৩টি উপজেলায় নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও উচ্চ আদালতের নির্দেশে দুটি উপজেলার নির্বাচন বন্ধ করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশনার। এ দুটি  হলো- সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ ও গাজীপুরের শ্রীপুর।

এবারের তৃতীয় ধাপে ৪১ জেলার ৮১ উপজেলায় মোট ১ হাজার ১১৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৪১৯, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪২৩ এবং সংরক্ষিত নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৭৭ জন। মোট ভোটার ১ কোটি ৩১ লাখ ৮৫ হাজার ১৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬৫ লাখ ৬৭ হাজার ৮৩২ জন, মহিলা ভোটার ৬৬ লাখ ১৭ হাজার ১৮১ জন। মোট ভোটকেন্দ্র ৫ হাজার ৪৫৬টি, ভোটকক্ষ ৩৮ হাজার ১৮৯টি।

প্রতি ভোটকেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার একজন করে মোট ৫ হাজার ৪৫৬ জন, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার একজন করে মোট ৩৮ হাজার ১৮৯ জন। এছাড়া ৭৬ হাজার ৩৭৮ জন পোলিং অফিসার দায়িত্ব পালন করবেন।

জয়-পরাজয়ের হিসাবে এ পর্যন্ত বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের পাল্লা ভারী। দুই পর্ব মিলিয়ে ক্ষমতাসীন দল সমর্থিত চেয়ারম্যানের সংখ্যা ৮২ জন। আর বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যানের সংখ্যা ৯৮ জন।

শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানে এরইমধ্যে নির্বাচনী এলাকাগুলোতে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে টহল শুরু করেছেন সেনাবাহিনী। নির্বাচনের আগে ও পরে মোট পাঁচদিন মাঠে থাকবেন তারা। সেই সাথে মোবাইল ফোর্স হিসেবে পর্যাপ্ত সংখ্যক র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ ও আনসার সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকেই শেষ হয়েছে মিছিল-মিটিংসহ সব ধরনের প্রচার-প্রচারণা। একইসঙ্গে বন্ধ রয়েছে সব ধরনের যান চলাচল।

ইসি কর্মকর্তারা জানান- নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে নির্বাচন কমিশন সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। ইতোমধ্যে রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলার ৩১টি ভোটকেন্দ্রে মালামাল ও ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যসহ সংশ্লিষ্টদের ভোটকেন্দ্রে যাওয়া আসার জন্য হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করেছে ইসি। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় নিরাপত্তায় নেওয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা।

কেএফ/ এআর