বাপার প্রতিবেদন : নাব্য হ্রাস ও ভাঙনের শিকার ৪৩ শতাংশ নদী

0
38

Bapa_PReddবাংলাদেশের অর্ধেক নদীতেই নেই স্বাভাবিক প্রবাহ। ভাঙন ও নাব্য হ্রাসের কারণে প্রায় মরতে বসেছে এ নদীগুলো। বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) জানিয়েছে দেশের ৪৩ দশমিক দশমিক শুন্য ২ শতাংশ নদী নাব্য হ্রাস ও ভাঙনের শিকার। এ অবস্থায় নদীগুলো বাঁচাতে সরকারকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানায় সংগঠনের নেতারা।

শুক্রবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে   সংবাদ সম্মেলন করে বাপা’র সাধারণ সম্পাদক ড. মো. আব্দুল মতিন তথ্য তুলে ধরেন।

সংস্থাটি সম্প্রতি ৫৭ টি নদীর অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে এ সংক্রান্ত এক প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

আবদুল মতিন জানান, নদীগুলো ৮৬ বার পর্যবেক্ষণ করে এ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। নদীগুলোর মধ্যে ৪৩ শতাংশ শুন্য ২ শতাংশই নাব্যতা সংকটে ভুগছে বলে জানান তিনি। তার মতে, বর্তমানে দেশের নদীগুলোর সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে নাব্যতা হ্রাস ও ভাঙন।

তিনি আরও বলেন, পদ্মা, তিতাস, করতোয়া, বলেশ্বর ও কপোতাক্ষ নদী নাব্যতা হ্রাসের মূল শিকার হচ্ছে। অবকাঠামো নির্মাণ ও ব্যবসায়ের শিকার হচ্ছে ২৭ দশমিক ৯০ শতাংশ নদী। দূষণের শিকার হচ্ছে ১১ শতাংশ নদী । সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত নদীগুলোর মধ্যে রয়েছে মেঘনা, ধলেশ্বরী, তিতাস ও পিয়াইন নদী।

বাপার যুগ্ম সচিব শাহজাহান মৃধা বলেন, পরিবেশের ওপর নদীর নাব্যতা হ্রাসের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। এতে সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তাই নদী রক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।