পক্ষ নিলে সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে : ভারপ্রাপ্ত সিইসি

0
33
EC

ECনির্বাচন কালীন সরকারি কর্মকর্তারা প্রার্থীর পক্ষে কাজ করলে তাদেরকে নির্বাচনী কাজ থেকে প্রত্যাহার করা হবে। পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে সর্ব্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার (ইসি) আব্দুল মোবারক।

বুধবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে  বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মোবারক বলেন, কোনো সরকারি কর্মকর্তা যদি কোনো প্রার্থীর পক্ষে কাজ করে তাহলে তাকে সর্ব্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হবে। অথবা নির্বাচনী কাজ থেকে প্রত্যাহার করা হবে।

এছাড়া এর আগে যারা অনিয়মে জড়িত ছিল তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

মোবারক বলেন, আমরা (ইসি) সতর্কতার সঙ্গে গণমাধ্যমের প্রদর্শিত তথ্য এবং প্রচারিত সংবাদ পর্যবেক্ষণ করে ব্যবস্থা নেই। প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের চেয়ে আগামি উপজেলা ও সংসদ উপনির্বাচন সুষ্ঠু হবে বলে আমরা আশা করছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা আইন শৃংখলা বাহিনীর সঙ্গে বিভিন্ন দিক নিয়ে পরামর্শ করেছি। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে পারে সে বিষয়ে সর্ব্বোচ্চ ব্যবস্থা নিতে নিদের্শ দেওয়া হয়েছে।

ভোট দেওয়া নাগরিক অধিকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভোট না দিলে কোনো শাস্তি নেই। কিন্তু অস্ট্রেলিয়াসহ উন্নত দেশে ভোট না দিলে শাস্তির ব্যবস্থা আছে।

নির্বাচন কমিশনের কাজ নির্বাচন করা। কমিশনের সহযোগী হচ্ছে আইন শৃংখলা বাহিনী। আমরা আশা করছি সকলের সহযোগিতায় নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে শেষ হবে।

এদিকে উপজেলায় ফোর্স ব্যবহারের বিষয়ে তিনি বলেন, আগে আমরা ফোর্স ব্যবহারের বিষয়ে কমিশন থেকে নির্দিষ্ট করে দিতাম। এখন স্থানীয় রিটার্নিং কর্মকর্তার প্রয়োজন অনুযায়ী ফোর্স ব্যবহার করবে। প্রয়োজন অনুযায়ী কোথাও বেশি বা কোথাও কম ব্যবহার হতে পারে।

এইচকেবি/ এআর